রবিবার ৭ মার্চ ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Breaking » বিএনপির বৃহৎ অংশ নিষ্ক্রিয়, নেপথ্য কারণ কী?



বিএনপির বৃহৎ অংশ নিষ্ক্রিয়, নেপথ্য কারণ কী?


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
17.02.2021

আগে থেকেই বেপরোয়া ছিলেন তারেক রহমান। কিন্তু তার সেই মাত্রা আরও বেড়ে গেলো দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারান্তরীণ হওয়ার পর। দলের একচ্ছত্র অধিপতি হয়ে বিএনপির এই ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গড়ে তুললেন নিজের আলাদা এক সাম্রাজ্য। সেখানে অর্থের বিনিময়ে ঠাঁই পেলেন অপরীক্ষিত-অযোগ্যরা। পক্ষান্তরে, হাইব্রিডদের দৌরাত্মে পরীক্ষিত নেতারা হয়ে পড়লেন একেবারেই কোণঠাসা। অবজ্ঞা-অবমূল্যায়নে অনেকেই তাই আজ নিষ্ক্রিয়।

দায়িত্বশীল সূত্রের তথ্যমতে, দুর্নীতি মামলায় বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে গেলে যেন ‘ঈদের চাঁদ’ হাতে পান তারেক রহমান। মায়ের অবর্তমানে নিজে দলের সর্বেসর্বা হয়ে আর্বিভূত হন স্বৈরাচারী আচরণে। মোটা অংকের অর্থ দিয়ে তাকে ‘খুশি’ করতে পারে এমন নেতাদের বুকে টেনে নিয়ে তিনি দলের দুর্দিনে মাঠে থাকা পরীক্ষিত নেতাদের এক প্রকার ছুঁড়ে ফেলে দেন। ফলে হাইব্রিডদের দাপটে সেসব পরীক্ষিত নেতারা কোণঠাসা হয়ে ক্রমেই নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ছেন।

বাংলা নিউজ ব্যাংকের সঙ্গে কথোপকথনে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এমন একাধিক নেতা জানান, বিএনপির দলীয় রাজনীতিতে আজ ব্যবসায়ীদের জয়জয়কার। তাদের অর্থের কাছে আমরা হেরে যাচ্ছি। কারণ, দলীয় পদ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করছেন তারেক রহমান। এ কারণে রাজনীতি থেকে আমাদের মন উঠে গেছে। জেনে গেছি, হাইব্রিড ও ব্যবসায়ীদের কাছে আমরা নস্যি। টাকাই সব। তাই নিষ্ক্রিয় থাকা ছাড়া আমাদের দ্বিতীয় কোন পথ খোলা নেই।

তাছাড়া, তারেক রহমানের অর্থ লোলুপ মনোভাবের কারণে খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমেদ, আবদুল্লাহ আল নোমান, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমদের মতো ত্যাগী নেতারাও আজ উপেক্ষিত। এ থেকে বুঝতে বাকী থাকে না, ত্যাগী বা প্রকৃত নেতাকর্মী নয়, হাইব্রিড ও ব্যবসায়ী নেতারাই ‘টাকার জোরে’ তার আস্থাভাজন হয়ে নিজেদের ফায়দা লুটছেন। ফলে জ্যেষ্ঠ নেতাদের অভাবে দুর্বল হয়ে পড়ছে দলীয় শক্তি। এতে হতাশায় রয়েছেন তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিজ্ঞজনরা বলছেন, বিএনপির বৃহৎ অংশ নিষ্ক্রিয় হওয়ার জন্য অদ্বিতীয়ভাবে তারেকের অর্থলোভী মনোভাব দায়ী। তার কারণেই দল আজ বিলীনের পথে। পরীক্ষিত-ত্যাগী ও দুর্দিনে মাঠে থাকা নেতাকর্মীরা তাই নিজেদের দলীয় কর্মকাণ্ড থেকে গুটিয়ে নিতে কুণ্ঠাবোধ করছেন না। এভাবেই যাদুঘরের রাজনীতির দলে পরিণত হতে চলেছে বিএনপি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি