বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » মিন্টুর মুখে ‘সরকারের বন্দনা’, ক্ষুব্ধ তারেক



মিন্টুর মুখে ‘সরকারের বন্দনা’, ক্ষুব্ধ তারেক


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
01.03.2021

সরকারপ্রধানের সফল তৎপরতায় স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উত্তরণ ঘটেছে বাংলাদেশের। গৌরবময় এই অর্জনের সঙ্গে সরকারের প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু। আর এ খবর লন্ডনে পলাতক ফেরারি আসামি ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কানে পৌঁছতেই তিনি তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠেছেন। বলেছেন, এর ফল মিন্টুকে ভোগ করতে হবে!

নির্ভরযোগ্য সূত্রের তথ্যমতে, স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা বা এলডিসি থেকে উত্তরণের খবরে খুশির জোয়ারে ভাসছে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তির মানুষরা। শুধু গাত্রদাহ হচ্ছে দেশ ও দশের ভালো না দেখতে পারা দেশবিরোধী বিএনপি-জামায়াত চক্রের। তাই তারা ইস্যু না হলেও সেটাকে ক্যাশ করে সরকারবিরোধী অপপ্রচারে লিপ্ত হচ্ছে। সর্বশেষ লেখক মুশতাকের স্বাভাবিক মৃত্যু নিয়েও চক্রটি মুখরোচক মিথ্যাচার করেছে। বলেছে তাকে নির্যাতনের মাধ্যমে মেরে ফেলা হয়েছে। অথচ তিনি দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। তার পরিবারের পক্ষ থেকেও একই কথা বলা হয়েছে। শুধু তাই নয়, সঙ্গে এও বলা হয়েছে মৃত্যু নিয়ে তাদের কোন অভিযোগ নেই। অথচ কুচক্রী মহলটির যেন ঘুম হারাম। তারা লাগাতার মিথ্যাচার করেই যাচ্ছে।

এমন পরিস্থিতিতে যখন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু ‘উন্নয়নশীল দেশের কাতারে’ উত্তরণের ঘটনাকে সাধুবাদ জানালেন, তখনই বেঁকে বসলেন তারেক রহমান। তার ভাষ্য, বিএনপির একজন জ্যেষ্ঠ নেতা হয়ে মিন্টু কিভাবে এ রকমটা করেন? তাহলে কি তিনি তলে তলে সরকারের অনুকম্পা প্রত্যাশী? এর হিসাব তাকে চুকাতে হবে।

তবে বিষয়টিকে অন্যভাবে ব্যাখ্যা করলেন মিন্টু। তিনি বাংলা নিউজ ব্যাংকের এই প্রতিবেদককে বলেন, স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা বা এলডিসি থেকে উত্তরণের পর বিশ্বে বাংলাদেশের মর্যাদা বাড়বে, এ কথা অস্বীকার করার কোন জো নেই। সেই দিক দিয়ে সুবিধাটা আমাদের সবারই হবে। তাই এই কথার ভিন্ন মাত্রা দেওয়ার কোন মানে হয় না। তাছাড়া সত্যতো সত্যই, তাকে খণ্ডন করবেন কিভাবে?

তিনি আরও বলেন, তারেক রহমানকে ভুল বুঝিয়ে তার কান ভারি করা হয়েছে। আর এই কাজটি দলের এক শ্রেণীর সুবিধাবাদী নেতারাই করেছেন। যাদের প্রত্যেককেই আমি খুব ভালোভাবে চিনি। যারা কখনোই নিজের ভালো বৈ দলের ভালো চাননি। তাই তাদের মতো লোকের কথা শুনে আমার উপর রাগ করাটা চরম বোকামি হবে।

এ বিষয়ে দেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মন্তব্য, সত্যকে কখনো চাপা দিয়ে রাখা যায় না। তা একদিন না একদিন প্রকাশিত হবেই। আবদুল আউয়াল মিন্টুর বিষয়েও সেটি হয়েছে। তিনি সরকারের সফল কর্মতৎপরতার প্রশংসা করেছেন। বলেছেন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উত্তরণ হওয়ায় বিশ্বে বাংলাদেশের মর্যাদা বাড়বে। আর এতেই তিনি পরিণত হয়েছেন, তারেকের চক্ষুশূলে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি