রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » সিনিয়রদের বাদ দিয়েই বিএনপিতে নেয়া হয় সিদ্ধান্ত



সিনিয়রদের বাদ দিয়েই বিএনপিতে নেয়া হয় সিদ্ধান্ত


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
02.03.2021

নিউজ ডেস্ক : দলীয় সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কিছুই জানানো হচ্ছে না দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের। উপজেলা নির্বাচনে যোগদানের পর শোচনীয় পরাজয়, সঙ্গে বাকী সকল নির্বাচনে যোগ না দেয়ার সিদ্ধান্তসহ সাম্প্রতিক সময়ে বিএনপির বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে জ্যেষ্ঠ নেতাদের মতামত নেওয়া হয়নি বলে জানা গেছে। এ নিয়ে তারা মনঃক্ষুন্ন মনোভাব প্রকাশ করছেন। দলের শীর্ষ পর্যায় থেকে সিদ্ধান্ত আসায় সিনিয়র নেতারা সিদ্ধান্তগুলো চুপচাপ মেনে নিলেও গোপনে দলের কার্যক্রম থেকে নিজেদের গুটিয়েও নিচ্ছেন অনেকেই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, বিএনপির পক্ষ থেকে আন্দোলনের ডাক দিচ্ছে সঙ্গে আগামীর উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়া থেকে বিরত থাকতে চাইছে তারা। তবে এসব সিদ্ধান্ত কোন পর্যায় থেকে, কোন প্রক্রিয়ায় হচ্ছে; তা নিয়ে দলের ভেতরে প্রশ্ন আছে। এতে দলীয় প্রধান বেগম খালেদা জিয়ার কতোটা সায় আছে, তা নিয়েও নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংশয়–সন্দেহ তৈরি হয়েছে। এই অবস্থায় জ্যেষ্ঠ নেতাদের অনেকে খটকায় পড়েছেন।

দলের একাধিক সূত্র জানায়, হঠাৎ হঠাৎ বিএনপি থেকে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত আসে। এর আগে ২০১৯ সালে বিএনপির সাংসদেরা সংসদে যোগ দেয়া, সংরক্ষিত নারী আসনে প্রার্থী দেয়া, নারী আসনের প্রার্থী চূড়ান্তসহ নানা সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও এসব বিষয়ে দলের নীতিনির্ধারণী পর্ষদ স্থায়ী কমিটিতে কোনো আলোচনা হয়নি। সিদ্ধান্তগুলো এসেছিলো লন্ডনে নির্বাসিত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছ থেকে। নেতাদের কেউ কেউ হয়তো জানতেন কী হতে যাচ্ছে। নেতারা বলছেন, বিষয়গুলো নিয়ে সে সময় একধরণের লুকোচুরি দৃশ্যমান ছিলো। যা এখনও অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্ন সিদ্ধান্ত জ্যেষ্ঠ নেতাদের কাছ থেকে লুকিয়ে বিএনপিকে কোন উচ্চতায় নিতে চাচ্ছে তা আমাদের বোধগম্য নয়।

এ বিষয়ে দুজন জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, বিষয়গুলো দুঃখজনক। দলের অভ্যন্তরে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, তবে দলের অন্য কেন্দ্রীয় নেতারা জানে না। এসব বেমানান। মূলত দলীয় সিদ্ধান্তগুলোর বিষয়ে নেতারা নিজেদের অপাংক্তেয় ভাবতে শুরু করেছেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি