বুধবার ২১ এপ্রিল ২০২১
  • প্রচ্ছদ » other important » কিসের জোরে পুলিশের গাড়িতে আগুন দেওয়ার হুমকি ভিপি নুরের?



কিসের জোরে পুলিশের গাড়িতে আগুন দেওয়ার হুমকি ভিপি নুরের?


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
02.03.2021

ডেস্ক রিপোর্ট: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর তার সমর্থকদের বলেছেন, ক্যাম্পাসে পুলিশের গাড়ি দেখলে আগুন দিতে। কিসের জোরে নুর তার সমর্থকদের এই বেআইনি নির্দেশ দিয়েছেন? তবে কি শান্তিপূর্ণ ক্যাম্পাস অস্থিতিশীল করে তোলার ইশারা পেয়েছেন? কারা তাকে সেই ইশারা দিল?

জানা গেছে, দেশকে অস্থিতিশীল করে তুলতে কয়েক বছর ধরে একটি দেশি-বিদেশী চক্র ষড়যন্ত্র করে চলেছে। এদের সাথে রয়েছে জনগণ কর্তৃক প্রত্যাখ্যাত বিএনপি জামায়াত-জোট। ভোটে পরাজিত হয়ে নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে অন্ধকার পথে ক্ষমতায় আসতে দলটি বিভিন্ন দূতাবাসে ধরনা দিচ্ছে। ভিপি নুরও কয়েকদিন পরপর দূতাবাসসমূহে হাজিরা দেন।

ছাত্র অধিকার পরিষদের এক নেতা জানান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে পুলিশের গাড়িতে আগুন দেওয়ার ইশারাও সেখান থেকেই পেয়েছেন ভিপি নুর। তিনি বলেন, সম্প্রতি এক যৌথ বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রসহ ই সি ডি ভুক্ত ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূতরা মুশতাক আহমেদের মৃত্যু নিয়ে স্বচ্ছ ও স্বাধীন তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন। লেখক মুশতাকের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে সরকারকে চাপে ফেলতে চায় পশ্চিমারা। সেজন্যই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে পুলিশের গাড়িতে আগুন দিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করতে বলেছেন ভিপি নুরকে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের কাছ থেকে পশ্চিমা দেশগুলো তাদের স্বার্থ হাসিল করতে চায়।

সূত্র জানায়, মুশতাকের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে আবার সহিংস রাজনীতি শুরু করেছে বিএনপি। এর মধ্যে প্রেস ক্লাবের সামনে পুলিশের ওপর হামলা করেছে ছাত্রদলের ক্যাডাররা। ভিপি নুরও বিএনপির সুরে কথা বলতে শুরু করেছেন। সব একই সূত্রে গাথা। ভিপি নুর ক্যাম্পাসে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করবেন, আরেকদিকে বিএনপি-জামায়াত সারা দেশে সহিংসতা চালাবে।

পশ্চিমাদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখেন বিএনপির এমন একজন নেতা বলেছেন, পশ্চিমা দেশগুলো তাদের বলেছেন দেশে সহিংসতা শুরু হলে তারা সরকারের বিরুদ্ধে ভূমিকা রাখতে পারবেন। দেশ স্থিতিশীল থাকলে তারা কিছুই করতে পারবেন না। এই আশ্বাসেই ভিপি নুরও সহিংসতা শুরু করতে কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন।

পশ্চিমা দেশসমূহের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা এক রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেছেন, পশ্চিমাদের মাধ্যমে ক্ষমতায় যাওয়ার আশ্বাস দেখলে বিএনপি দিবাস্বপ্ন দেখছে। বিএনপি এবং ভিপি নুর পশ্চিমাদের ফাঁদে পা দিয়েছেন। এর আগেও বিএনপিকে সহিংসতা করতে বলে নিজেদের স্বার্থ হাসিল হলে বিএনপিকে ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছে পশ্চিমারা। এবার ভিপি নুরকেও সেই একই ফাঁদে ফেলেছে পশ্চিমারা। ভিপি নুরের উচিত হবে, দূতাবাসে দূতাবাসে না ঘুরে জনগণের কাছে যাওয়া। নয়ত অচিরেই বিএনপির পরিণতি বরণ করতে হবে ভিপি নুরকে।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি