রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » হঠাৎ কেন ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালন করতে চায় বিএনপি?



হঠাৎ কেন ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালন করতে চায় বিএনপি?


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
06.03.2021

নিউজ ডেস্ক: এতোদিন ধরে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবার নিয়ে মিথ্যাচার করে আসছে বিএনপি। কিন্তু হঠাৎ করে তারা বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের দিন ৭ মার্চ পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিষয়টির পেছনে নিশ্চয়ই কোন কারণ আছে বলে মন্তব্য, দেশের বিশিষ্টজনদের।

দায়িত্বশীল সূত্রের তথ্যমতে, সাংগঠনিক কোন তৎপরতা না থাকায় ‘নেই কাজ তো খৈ ভাজ’ নীতিতে চলছেন বিএনপি নেতৃবৃন্দ। পাশাপাশি নিজেরা মেতে আছেন সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে। নালিশ ও অভিযোগনির্ভর এই দলটি নিজেদের দলীয় নেত্রীকেও কারামুক্তি করতে পারেনি। এমনকি রাজপথে কোন আন্দোলনও তারা গড়ে তুলতে পারেনি। উপরন্তু নেত্রীর মুক্তির নামে বিভিন্ন মহল থেকে মোটা অংকের ফান্ড এনে তা নিজেদের মধ্যে ভাগ-বাটোয়ারা করে নেয়। এমতাবস্থায় বেগম খালেদা জিয়া দলের নিরুত্তাপ অবস্থা থেকে বাধ্য হয়ে পরিবারের মাধ্যমে সরকারের অনুকম্পা নিয়ে বিশেষ শর্তে কারামুক্তি নেন। তারেক রহমানও ছিলেন নিশ্চুপ।

এখন প্রশ্ন হলো, সরকারের নিন্দা করা বিএনপি তাহলে কেন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন উপলক্ষে ৭ মার্চ পালনের উদ্যোগ নিল? আর সেটা এতো বছর পরে এসে কেন? এর মানে কি তারা দেশের প্রতি বঙ্গবন্ধুর অবদানকে স্বীকার করে নিল? নাকি রাজনীতিতে নিজেদের কোন ‘কূল-কিনারা’ না পেয়ে তারা এখন সরকারের অনুকম্পা পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে? তারই অংশ হিসেবে রোববার (৭ মার্চ) বিকেল ৩টার দিকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বিএনপির পক্ষ থেকে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষ্যে শনিবার (৬ মার্চ) সন্ধ্যায় বিএনপির স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন জাতীয় কমিটির সদস্য জেড খান মো. রিয়াজউদ্দীন নসু বলেন, আহুত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার সঙ্গে অংশগ্রহণ করবেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা এবং সভায় সভাপতিত্ব করবেন জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক ও বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। সমগ্র সভা পরিচালনা করবেন জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুস সালাম।

এর আগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর গুলশানের একটি মিলনায়তনে গণমাধ্যমের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছিলেন, একাত্তরের ৭ মার্চ শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ অবশ্যই ইতিহাস।

রাজনৈতিক বিজ্ঞজনদের ভাষ্য, এর পেছনে নিশ্চয়ই কোন কারণ লুকিয়ে আছে। তাছাড়া দেশবাসী সবাই-ই কমবেশি অবহিত যে, নিজেদের স্বার্থ ছাড়া এক পা-ও সামনে অগ্রসর হয়না বিএনপি। নতুন ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই তারা ৭ মার্চ পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এ কথা এখন পানির মতো স্বচ্ছ। সরকারের পাশাপাশি তাই এ ব্যাপারে সাধারণ জনগণকেও সচেতন থাকতে হবে, যাতে তারা কোনভাবেই তাদের অসৎ উদ্দেশ্য সাধন না করতে পারে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি