রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১



দলীয় নিষ্ক্রিয়তায় বিএনপিতে গণ পদত্যাগের শঙ্কা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
10.03.2021

নিউজ ডেস্ক: জুম অ্যাপে সভা ও দলীয় নিষ্ক্রিয়তার কারণে বিএনপির কেন্দ্র এবং তৃণমূলের মধ্যে অসন্তোষ বাড়ছে। এই অসন্তোষের জেরে দলটিতে নেতাদের গণ পদত্যাগের শঙ্কা বিরাজ করছে।

জানা গেছে, দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ড নিয়ে ২৫ মাস কারাগারে এবং আট মাস গুলশানের বাসায় বিশ্রামে রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। তার মুক্তির দাবিতে বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতারা ইন্টারনেটে জুম মিটিং এবং প্রেস ব্রিফিংয়ে সীমাবদ্ধ থাকার কারণে ক্ষুব্ধ দলটির তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। তৃণমূলের নানামুখী চাপে কেন্দ্রের নির্লিপ্ততায় বাড়ছে ক্ষোভ ও হতাশা।

বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ের একাধিক নেতার সঙ্গে আলাপকালে ক্ষোভের বিষয়ে জানা গেছে। এই বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রাজশাহী জেলা বিএনপির সিনিয়র এক নেতা বলেন, কালক্ষেপণ করতে করতে বিএনপির রাজনীতিতে আলস্য ভর করেছে। এভাবে ঈদ-পূজার অপেক্ষা করা এবং করোনার দোহাই দেখিয়ে আন্দোলন না করলে বেগম জিয়াকে কোনোদিনই মুক্ত করা সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, ভয়-ভীতি পেয়ে রাজনীতি করলে আগামীতে বিএনপি শুধু খাতা-কলমে টিকে থাকবে, মাঠে খুঁজে পাওয়া যাবে না।

বেগম জিয়ার মুক্তির জন্য তৃণমূলের চাপ প্রসঙ্গে বরিশাল জেলা বিএনপির এক জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, প্রতিনিয়ত চাপের মধ্যে রয়েছি। প্রতিদিনই চাপ বাড়ছে। প্রয়োজনে কেন্দ্র থেকে সব পর্যায়ে নেতৃত্ব পরিবর্তনের আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, দলীয় নিষ্ক্রিয়তার কারণে নেতাকর্মীদের কাছে মুখ দেখাতে পারছি না। এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের নীরবতায় ক্ষোভ বাড়ছে তৃণমূল নেতৃবৃন্দের। রাজনৈতিক কোনো ইস্যু না থাকার কারণে তৃণমূলের নেতাকর্মীদেরকে আশ্বাস দিতে পারছি না। এর ফলে বিএনপির রাজনীতি থেকে নেতাকর্মীদের আস্থা উঠে যাচ্ছে।

তৃণমূলের অসন্তোষ বিষয়ে ফেনী জেলা বিএনপির সাবেক এক নেতা বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন ও তার ছেলে দুইজনই দণ্ডিত। দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের কর্মকাণ্ডে তৃণমূলের নেতাকর্মীরাও হতাশ। বিএনপি নেতারা ঘরে বসে আয়েশ করছেন। তৃণমূলে যেভাবে ক্ষোভ বাড়ছে, তাতে গণ পদত্যাগের বড় ধরনের শঙ্কা রয়েছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি