বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১
  • প্রচ্ছদ » other important » বিএনপির পর এবার ভারতের সুদৃষ্টি অর্জনের চেষ্টায় জামায়াত



বিএনপির পর এবার ভারতের সুদৃষ্টি অর্জনের চেষ্টায় জামায়াত


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
18.03.2021

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে নরেন্দ্র মোদির ঢাকায় আগমনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিএনপির পর এবার জামায়াতে ইসলামের পরিকল্পনা সামনে এলো। জানা যায়, মোদীর সান্নিধ্য পেতে বিএনপি হাইকমান্ড উঠে পড়ে লেগেছিল। তবে গঠনতন্ত্র বহির্ভূত হলেও জামায়াত চাচ্ছে ভারতের সঙ্গে মিলে মিশে একাকার হতে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, জামায়াতের মতো সাম্প্রদায়িক একটি দলের ভারতের সুদৃষ্টি প্রত্যাশা করা বৃথা আস্ফালন ছাড়া আর কিছু না। কেননা, দলটি ধর্মনিরপেক্ষ নয় বলেই বিশ্ব রাজনীতিতে সমালোচিত।

জামায়াতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক জোরদার হওয়ার প্রত্যাশা রেখে দলটির কেন্দ্রীয় প্রচার বিভাগের এম. আলম স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে জামায়াতের আমির মকবুল আহমদ বলেছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে আসার কারণে জামায়াতে ইসলামীর পক্ষ থেকে নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।

জামায়াতের এমন প্রচেষ্টা বিফল হবে বলে মন্তব্য করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, বিগত ৬ বছর ধরে ২০ দলীয় জোটের প্রধান শরিক দল বিএনপির কাছে প্রধান বাঁধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে জামায়াত। বিএনপি সংসদ নির্বাচনে ভারত তথা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সহযোগিতা কামনা করলেও তা না পাওয়ার প্রধান অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় জামায়াতের সঙ্গ। সে সময় ভারতসহ অন্যান্য দেশগুলো বিএনপিকে জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করতে জোর তাগিদ দেয়। যা এখনও অব্যাহত রয়েছে। ফলে ভারত সরকারের সুদৃষ্টি তৈরিতে জামায়াতের এই প্রশংসা কোনো কাজে আসবে না বলেই আমার মনে হয়।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে জামায়াতের দ্বারা বিএনপি সারা দেশে যে নির্যাতন চালিয়েছিল সেই সহিংসতা ভোলার নয়। দেশিয় এবং আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে যা যুগে যুগে সমালোচিত হবে। সুতরাং ভারত একটি হিন্দু অধ্যুষিত দেশ হওয়ায় জামায়াতকে কোনোদিনই সহজ চোখে দেখবে না বলেই আমার মনে হয়। বরং জামায়াতের কারণে বিএনপিও ভারতের সুদৃষ্টি থেকে বঞ্চিত হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি