বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » সোহেল তাজের বক্তব্যকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করেছে ছাত্র অধিকারের ফারুক



সোহেল তাজের বক্তব্যকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করেছে ছাত্র অধিকারের ফারুক


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
25.03.2021

নিউজ ডেস্ক: দেশে চলছে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব। করোনার কারণে ভেস্তে যাওয়া মুজিববর্ষও এক বছর বাড়িয়ে নেওয়া হয়েছে। যার ফলে দেশে একসাথে চলছে দু’টো জাতীয় অনুষ্ঠান। আর এসব অনুষ্ঠান থেকে জাতির সামনে তুলে ধরার চেষ্টা চালানো হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাসকে। কারণ ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার মধ্য দিয়ে পাকিস্তানি প্রেতাত্মারা এদেশের মানুষের সামনে ভুলভাবে মুক্তিযুদ্ধকে উপস্থাপন করার চেষ্টা চালিয়েছে। সঠিক ইতিহাসকে বিকৃত করে ভুলভাবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে সাজিয়েছে। বিশেষ করে বিএনপি দীর্ঘ সময় বাংলাদেশের ক্ষমতায় থাকাকালে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে মারাত্মকভাবে বিকৃত করেছে। আর বিএনপির ইতিহাস বিকৃতির এবিষয়টিকে দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমদের ছেলে ও আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ তার এক ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন। কিন্তু সোহেল তাজের এই স্ট্যাটাসের বক্তব্যকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করেছে ছাত্র অধিকার পরিষদের অন্যতম নেতা ফারুক হাসান।

বুধবার (২৪ মার্চ) মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস প্রসঙ্গে সোহেল তাজ একটি স্ট্যাটাস দেন। যেখানে তিনি বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করার বিষয়টি তুলে ধরেছেন।

তবুও বিএনপি-জামায়াতের পেইড এজেন্ট নুরুল হক নুরের একান্ত অনুচর ফারুক হাসান তার ফেসবুকে সোহেল তাজের বক্তব্যকে ভিন্নভাবে উল্লেখ করে বর্তমান সরকার ইতিহাস বিকৃত করছে বলে মন্তব্য করেন। এবং নুরুর ছাত্র অধিকার পরিষদ আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজের বক্তব্যটিকে সরকারের বিরুদ্ধে সাজিয়ে ফেসবুকে বুস্টের মাধ্যমে ভাইরাল করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

এবিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুভাস সিংহ রায় বলেন, দেখুন মুক্তিযুদ্ধে সরাসরি বিরোধিতা করেছিল যারা সেই জামায়াতকে লালন পালন করছে বিএনপি। তাই আমাদের মনে রাখতে হবে যারা স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তিকে লালন পালন করে তারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করবে এটা স্বাভাবিক বিষয়। সোহেল তাজ তার স্ট্যাটাসে কোনো ভুল বলেননি, বিএনপি যতবার ক্ষমতায় এসেছে ততবার তারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে তাদের পক্ষে সাজানোর জন্য বিকৃত করেছে। স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও আমরা এই বিএনপি-জামায়াতের জন্য নিজেদের মুক্তিযুদ্ধের সময়কার সঠিক ইতিহাস হৃদয়ে আঁকতে ব্যর্থ হয়েছি। বিএনপি-জামায়াতের ইতিহাস বিকৃত করার বিষয়টিকে সোহেল তাজ তুলে ধরেছেন মাত্র। যা সহ্য হচ্ছে না বিএনপি-জামায়াতের পেইড এজেন্ট নুরু-ফারুক গংদের। তারা স্বাধীনতার বিরুদ্ধের শক্তির বিপক্ষে সোহেল তাজের এই স্ট্যাটাসকে ভিন্নভাবে জনগণের সামনে তুলে ধরার জন্য ফেসবুকে রীতিমত ইনভেস্ট করছেন। যা গর্হিত কাজ বলেই মনে করি।

সোহেল তাজের বক্তব্যকে বিকৃত করার প্রসঙ্গে রাজনৈতিক বিশ্লেষক বিভুরঞ্জন সরকারের সাথে কথা হলে তিনি আমাদের প্রতিবেদককে বলেন, সত্য চিরজীবন সত্য। সত্যকে কখনো মিথ্যা দিয়ে ঢেকে রাখা যায় না। স্বাধীন বাংলাদেশ গঠন, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে সবচেয়ে অগ্রণী ভূমিকা রাখা জাতীয় চার নেতার অবদানকে বাংলাদেশের মানুষ চিরজীবন শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে। যতবার বিএনপি ক্ষমতায় ছিল ততবার মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু, আওয়ামী লীগ ও জাতীয় চার নেতার অবদানকে মানুষের মন থেকে ভুলিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছে। যা সোহেল তাজ তার স্ট্যাটাসের মাধ্যমে বোঝানোর চেষ্টা করেছেন। আর বর্তমানে চেতনায় মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী এমন মতের মানুষগুলো সবাই একসাথে জোট বেঁধেছে। বিশেষ করে বিএনপি-জামায়াতের পেইড এজেন্ট হিসেবে নুরুল হক নুর, ফারুক, রাশেদ ও তাদের রাজনৈতিক দল কাজ করছে যা আজ স্বীকৃত সত্য। এই নুরু-ফারুকরাই সোহেল তাজের স্ট্যাটাসকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করে আলোচনায় থাকার চেষ্টা করছেন।

সামগ্রিক বিষয়ে আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ বলেন, আমার স্ট্যাটাসের কথাটিকে ছাত্র অধিকারের ফারুকসহ তাদের অনিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের লোকজন যেভাবে বিকৃত করেছে তা দেখে আমি রীতিমত অবাক হয়েছি। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে হৃদয়ে লালন করি। আর আমাকেই নুরু-ফারুক গংরা আওয়ামী লীগের চোখে খারাপ বানানোর জন্য এহেন অপপ্রচার চালালো। আমি অতি শিগগিরই আইনের আশ্রয় চাইবো। আমার মানহানি করা হয়েছে। ওদের মনে রাখা উচিত মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস আওয়ামী লীগ লালন করে আর মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস বিএনপি আড়াল করে বিকৃত তথ্য উপস্থাপন করে জনগণকে বিভ্রান্ত করে। তাই সবার উচিত বিএনপি-জামায়াত আর কখনো মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করার চেষ্টা চালালে তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া।

উল্লেখ্য, নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমদের ছেলে ও আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও আমরা নিজেদের সঠিক ইতিহাস জানি না বলে স্ট্যাটাস দেন। যা লুফে নেয় নুরু-ফারুক গংরা। তারা অপপ্রচার শুরু করে বর্তমান সরকার মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করছে ও সোহেল তাজ এটাই বিশ্বাস করেন। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা অপপ্রচার ছাড়া অন্য কিছু নয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি