বৃহস্পতিবার ১৫ এপ্রিল ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » বিএনপি-জামায়াতের ছায়াতলে তাণ্ডব চালাচ্ছে হেফাজত



বিএনপি-জামায়াতের ছায়াতলে তাণ্ডব চালাচ্ছে হেফাজত


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
26.03.2021

নিউজ ডেস্ক: বিএনপি-জামায়াতের ছায়াতলে থেকে কখনো আইএস, কখনো জেএমবি, কখনো হিযবুত তাহরীর নামে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিগত দিনগুলোতে জঙ্গি হামলা চালানো হয়েছে। এবারও ঠিক একইভাবে বিএনপি-জামায়াতের ছায়াতলে থেকেই রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তাণ্ডব চালিয়েছে হেফাজত নামধারী উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর সন্ত্রাসীরা। সূত্র বলছে, দেইল্যা রাজাকারের কুপুত্র মাসুদ বিন সাঈদীসহ দেশের শীর্ষস্থানীয় জামায়াত-শিবিরের নেতারা মোদি ইস্যুকে কেন্দ্র করে ফেসবুকে একের পর এক উসকানিমূলক স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

শুক্রবার (২৬ মার্চ) ঢাকার বায়তুল মোকাররমে, চট্টগ্রামের হাটহাজারী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ বিভিন্ন স্থানে মোদি বিরোধী আন্দোলনে অংশ নেয়া ​প্রতিবাদী হেফাজত কর্মীদের উদ্দেশ্যে উসকানিমূলক স্ট্যাটাস দিতে দেখা যায় মাসুদ বিন সাঈদীসহ জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের।

সূত্র বলছে, জামায়াত-শিবির নিয়ন্ত্রিত বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ থেকেও সরকারের বিরুদ্ধে হেফাজত কর্মীদের উসকে দিতে একের পর এক গুজব ছড়ানো হয়েছে। অপপ্রচার চালিয়ে বলা হয়েছে যে, বায়তুল মোকাররমে মুসল্লিদের আটকে রেখে নির্বিচারে হত্যা করা হচ্ছে। আর এই ধরনের গুজব সাধারণ মুসল্লি ও হেফাজত কর্মীদের মগজে প্রবেশ করিয়ে বিএনপি, জামায়াত-শিবির চক্র তাদের উত্তেজিত করতে সমর্থও হয়েছে। যারই ফলস্বরূপ গুজবের প্রতিক্রিয়ায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিনে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে থানা ও বিভিন্ন সরকারি স্থাপনায় হামলা চালায় হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা।

এপ্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, বিএনপি-জামায়াতের শীর্ষ নেতারা বিগত কয়েকদিন যাবৎ যে সমস্ত স্ট্যাটাস দিচ্ছেন ফেসবুকে। তা জাতির জন্য চরম বিব্রতকর। কারণ তাদের উসকানিমূলক এসব স্ট্যাটাস দেশকে আরো সংঘাতের দিকে নিয়ে যাবে। হেফাজত কর্মীরা এমনিতেই উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী। আর তাদেরকে যদি বিএনপি-জামায়াত নেতারা পেছন থেকে সকল ধরনের সাহায্য করার পাশাপাশি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে উৎসাহিত করে তবে তো চট্টগ্রামের হাটহাজারী মডেল থানার মতো তাণ্ডব সারাদেশে ছড়িয়ে পড়বেই।

বিএনপি ও জামায়াত-শিবির নিয়ন্ত্রিত বিভিন্ন ফেসবুক অ্যাকাউন্ট এবং ফেসবুক গ্রুপ পর্যালোচনা করে দেখা যায় যে, তাদের এসব অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে ‘হেফাজত কর্মীদের নির্মমভাবে হত্যা করছে পুলিশ’ এমন মিথ্যা সংবাদ ভাইরাল করা হয়। আর এরপর পরই সারাদেশে একের পর এক স্থানে হেফাজত কর্মীরা থানা ও বিভিন্ন সরকারি স্থাপনায় হামলা চালাতে শুরু করে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিনে তাণ্ডব চালানো হয় সারা বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে। যা ছিল স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি বিএনপি-জামায়াতের মদদে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি