মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » নগদ অর্থের বিনিময়ে মামুনুল হকদের তাণ্ডবলীলার তথ্য ফাঁস করলেন রুমিন ফারহানা!



নগদ অর্থের বিনিময়ে মামুনুল হকদের তাণ্ডবলীলার তথ্য ফাঁস করলেন রুমিন ফারহানা!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
30.03.2021

নিউজ ডেস্ক: স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী মৌলবাদী গোষ্ঠীর তাণ্ডবলীলার পেছনে পাকিস্তান দূতাবাসের অর্থায়নের স্বীকারোক্তি দিয়েছেন বিএনপির সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা। ফেসবুক স্ট্যাটাসে রুমিন লিখেছেন, “মামুনুল সাহেবরা নাকি ব্রান্ডেড গাড়ি বাড়ি নগদ অর্থ সবই পেয়ে গেছেন।”

বিএনপি ঘনিষ্ঠ একটি সূত্রে জানা গেছে, নরেন্দ্র মোদির আগমনকে কেন্দ্র করে দেশে বিশৃঙ্খলা তৈরি করে সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে হেফাজতের নেতা মামুনুল হকের হাতে নগদ ১০ কোটি টাকা দেয় পাকিস্তান দূতাবাস। সেই টাকা সারাদেশের হেফাজত নিয়ন্ত্রিত মাদ্রাসায় বণ্টন করে দেওয়া হয়। এরপরই মাদ্রাসা ছাত্রদের নিয়ে মাঠে নামে মৌলবাদী শক্তি। ঢাকা, চট্টগ্রাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চালায় ধ্বংসযজ্ঞ। কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে, হেফাজতের নেতাদের পাকিস্তান দূতাবাসের টাকায় ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর তথ্য কি কারণে ফাঁস করলেন বিএনপি নেতা রুমিন ফারহানা?

জানা গেছে, একের পর এক আন্দোলনে ব্যর্থ বিএনপির পরিবর্তে এবার হেফাজতে ইসলামীর মত কট্টর মৌলবাদী গোষ্ঠীকে দিয়ে স্বাধীনতার পক্ষের সরকারকে উৎখাতের চক্রান্তে নেমেছে পাকিস্তান দূতাবাস। আর এই খবর পেয়েই চটেছেন বিএনপি নেত্রী রুমিন ফারহানা। তার আশঙ্কা, বিএনপিকে দূরে ঠেলে হেফাজতকে কাছে টানলে বিএনপির ক্ষমতায় আসার স্বপ্ন ধূলিসাৎ হয়ে যাবে। এই আশঙ্কা থেকেই পাকিস্তান দূতাবাস থেকে মামুনুল হকদের টাকা পাওয়ার বিষয়টি ফাঁস করেছেন রুমিন ফারহানা।

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের শরীক বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব:) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, বিএনপির সাথে পাকিস্তানের সবসময়ই সুসম্পর্ক ছিল। কিন্তু এক দশক ধরে সরকার পতনের আন্দোলনে ব্যর্থ হওয়ায় হয়ত বিএনপি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে পাকিস্তান।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি