মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » মিয়া খলিফার ভীষণ ভক্ত রফিকুল ইসলাম মাদানি



মিয়া খলিফার ভীষণ ভক্ত রফিকুল ইসলাম মাদানি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
08.04.2021

নিউজ ডেস্ক : রাষ্ট্রবিরোধী উস্কানিমূলক ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানির মোবাইলে পর্নো ভিডিও পেয়েছে র‌্যাব। বুধবার (৭ মার্চ) তাকে গ্রেপ্তারের পর মোবাইল ফোন চেক করলে একাধিক পর্নো ভিডিও পাওয়া যায়। যার অধিকাংশই পর্নো তারকা মিয়া খলিফার বলে নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে রফিকুল ইসলাম মাদানির ঘনিষ্ঠজনকে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, মিয়া খলিফার চেহারা এবং ভিডিওতে তার অভিনয় খুব বেশি পছন্দ রফিকুল ইসলাম মাদানির। সঙ্গে হিজাব পরে ভিডিও করায় মিয়া খলিফার চেহারার মধ্যে একটি সুন্নতি ভাব খুঁজে পাওয়া যায় বলেও তিনি মনে করতেন। সবচেয়ে বড় কথা পর্নো দেখলোও ঈমান ঠিক রাখা জরুরি। আর পর্নো দেখার সময় হিজাবি পর্ন দেখলে ঈমানও থাকে, সঙ্গে মনের খায়েশও মেটে। এ বিষয়টি অনুধাবন করতে পেরেই রফিক সাহেব মিয়া খলিফার ভিডিও তার ব্যক্তিগত মোবাইলে সংরক্ষণ করে রাখতেন।

এ দিকে জানা যায়, কাবিননামা ছাড়াই আসমা নামের এক মেয়েকে দুই বছর আগে গোপনে বিয়ে করেছিলেন রফিকুল ইসলাম মাদানি। যার চেহারার সঙ্গে সানি লিওনের মিল আছে। তবে রফিকুল হুজুরের পুরো মোবাইল খুঁজে সানি লিওনের কোনো ভিডিও পাওয়া যায় নি।

এ বিষয় জানতে চাইলে রফিকুল ইসলাম মাদানির আত্মীয় বলেন, হুজুর সাহেবের বাহারি সখ। ওয়াজ করে ভালো টাকা আয় করেন। বিভিন্ন সময় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকেন। তাই যখন ঘরে থাকেন, তখন সানি লিওনকে দেখতে পান, ফলে আলাদা করে তার ভিডিও মোবাইলে রাখার প্রয়োজন নেই। তবে বাইরে থাকলে হাতের ব্যবহারের জন্য মিয়া খলিফা প্রয়োজন।

তবে বলে রাখা ভালো হুজুর কিন্তু মনের খায়েশ মেটানোর জন্য পর্নো ভিডিও দেখেন না। তিনি পর্নো দেখেন বিভিন্ন স্টাইলে আমাদের সানি লিওনের মতো ভাবির কোলে ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্য। মূলত, রফিকুল ইসলাম মাদানির মতে শিক্ষার কাজে সুদূর চীনে যাওয়ার চেয়ে মোবাইলে পর্নো দেখে শিক্ষা নেয়া বেশি উত্তম।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি