শনিবার ১৫ মে ২০২১



অচিরেই খালেদাকে নেওয়া হতে পারে হাসপাতালে!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
15.04.2021

নিউজ ডেস্ক: গত ১০ এপ্রিল (শনিবার) দুই দফায় বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নমুনা সংগ্রহের পর জানা যায়, তার রিপোর্ট করোনা ‘পজিটিভ’। পরবর্তীতে রোববার (১১ এপ্রিল) বিষয়টি সবাই মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পারে। তখন থেকে অদ্যাবধি তিনি বাসায় থেকে ব্যক্তিগত চিকিৎসক টিমের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে অচিরেই তার পরবর্তী চিকিৎসা কোথায় হবে, তা জানতে সিটি স্ক্যান করা হবে। এ কারণে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হবে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এফ এম সিদ্দিকী।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় বিএনপি চেয়ারপারসনের স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে তিনি বলেন, কোভিডে আপনি কখনও বলতে পারবেন না যে আগামীকাল আপনার অবস্থা কেমন হবে। এটা খুব দ্রুত পরিবর্তনশীল একটি ভাইরাস। তবুও আমরা খুব দ্রুত তার সিটি স্ক্যান করাব। সিটি স্ক্যান করার পর যদি দেখি বাসায় রেখে চিকিৎসা করাটা তার জন্য ভালো হবে, তখন সেটাই করা হবে। আর রিপোর্ট দেখে যদি মনে হয়, কয়েকদিনের জন্য তাকে হাসপাতালে রেখে অবজারভেশন করব, তখন সেটাই করা হবে। অর্থাৎ সিটি স্ক্যানের রিপোর্টের ওপর নির্ভর করছে ম্যাডামের (খালেদা জিয়ার) চিকিৎসা কোথায় হবে।

এই প্রতিবেদককে ডা. সিদ্দিকী আরও বলেন, সিটি স্ক্যান করাতে হলে তাকে হাসপাতালে নিতে হবে। কোথায় সিটি স্ক্যান করাব, সে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সময়মতো আপনাদের জানিয়ে দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে দেশের রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে বিএনপি ছলে-বলে-কৌশলে চাচ্ছে করোনার চিকিৎসার নামে খালেদাকে বিদেশে পাঠাতে এবং সেখান থেকেই দল পরিচালনা করতে। ইতোমধ্যে বিএনপির পক্ষ থেকে তারেক রহমানকে সে কথা জানানো হয়েছে। তবে তিনি এ বিষয়ে এখনও অবধি নিরব ভূমিকায় রয়েছেন।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা আরও বলছেন, দেশের মানুষ যখন করোনা সংক্রমণের ভয়ে তটস্থ, তখন প্রাণের মায়ায় খালেদার বিদেশ যাত্রাটা মোটেই সমীচীন হবে না। যদি তিনি এমনটা করেন, তাহলে আবারও প্রমাণিত হবে তিনি বরাবরই স্বার্থপর একজন নেত্রী, মোটেই আপোষহীন ও দেশপ্রেমিক নন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি