মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » নতুন নেতৃত্ব আসছে হেফাজতে, বাদ পড়ছেন বাবুনগরী-মামুনুলরা



নতুন নেতৃত্ব আসছে হেফাজতে, বাদ পড়ছেন বাবুনগরী-মামুনুলরা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
22.04.2021

সাম্প্রতিক সময়ে নানা বিতর্ক আর অভ্যন্তরীণ কোন্দলে নাস্তানাবুদ হেফাজত। গ্রেফতার হচ্ছেন হেফাজতের শীর্ষ নেতারা। সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রতিবাদও করতে পারছে না তারা। দলের এক অংশের ধারণা, বর্তমান আমীর জুনায়েদ ইসলাম বাবুনগরীর কারণেই হেফাজতের এই অবস্থা। তাই নতুন আঙ্গিকে আসছে হেফাজত। বাদ পড়ছেন হেফাজত আমির বাবুনগরী-মামুনুলসহ তার অনুসারী অন্তত দুই ডজন নেতা।

প্রথম দিকে আহমেদ শফী পুত্র আনাস মাদানীকে চিন্তা করা হলেও অধিকাংশ হেফাজত নেতাই মনে করেছেন তিনি তরুণ; তার গ্রহণযোগ্যতা কম। নতুন নেতৃত্বের আলোচনায় এগিয়ে আছে সংগঠনটির বর্তমান মহাসচিব নুরুল ইসলাম জিহাদী। তার গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে এবং গত সোমবার স্বরাষ্টমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের সময় জিহাদী নেতৃত্ব লক্ষযোগ্য ছিল বলে মনে করেন অনেক হেফাজত নেতাকর্মীরা।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, হেফাজতের ইসলামের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে নতুন করে চিন্তা করেছ একটি গ্রুপ। তারা চাইছে হেফাজত যেহেতু কোনো রাজনৈতিক সংগঠন নয়। তাই ইসলাম প্রচার নিয়েই থাকতে চান তারা।

২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরে সহিংস ঘটনার পর মামলার জালে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা কোনঠাসা হয়ে পড়ে। ওই সময়ে গ্রেপ্তার এড়াতে বেশিরভাগ নেতা গা ঢাকা দেন। তবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনকে বাধাগ্রস্ত করতে পরিকল্পিতভাবে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংস ঘটনায় জড়ায় দলটির নেতাকর্মীরা।

সর্বশেষ সোনারগাঁওয়ে রিসোর্টকাণ্ডে তাদের মুখোশ আবারও উন্মোচিত হয়। হেফাজত নেতা মামুনুলের একাধিক বিয়ে নিয়েও সংকটে পড়ে দলের ইমেজ। এসব ঘটনায় ইতোমধ্যে হেফাজতের শীর্ষ পর্যায়ের ১৩ নেতা গ্রেপ্তার হন। গ্রেপ্তার আতঙ্কে রয়েছেন আরও হেভিওয়েট অন্তত ৩৫ নেতা। ইসলামী সমমনা অন্য দলগুলোও হেফাজতের কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনা ও মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি