মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » তারেক রহমানের বিশেষ অ্যাসাইনমেন্টে লন্ডন থেকে সক্রিয় অনলাইন পোর্টাল ‌‘কচুয়ার ডাক’



তারেক রহমানের বিশেষ অ্যাসাইনমেন্টে লন্ডন থেকে সক্রিয় অনলাইন পোর্টাল ‌‘কচুয়ার ডাক’


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
23.04.2021

নিউজ ডেস্ক: লন্ডন থেকে সক্রিয় ‘কচুয়ার ডাক’ নামে একটি অনলাইন পোর্টাল বাংলাদেশ সরকার ও আওয়ামী লীগ বিরোধী নানা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। জানা যায়, লন্ডনে অবস্থানরত পলাতক তারেক জিয়ার একজন ঘনিষ্ঠ আইনজীবী সাখাওয়াত হোসেন টিটো গত তিন বছর ধরে লন্ডন থেকে এই অনলাইন পোর্টালটি চালাচ্ছেন। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁদপুরের কচুয়ায় বিএনপি নেতা এহসানুল হক মিলনের পরিবর্তে তারেক জিয়ার মনোনীত বিএনপি’র প্রার্থী মোশারফ হোসেনের রাজনৈতিক উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন টিটো মূলত জামাত নেতা। ঐতিহাসিকভাবে কচুয়ায় অসংখ্য মাদ্রাসা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান থাকার কারণে আওয়ামী লীগ বিরোধী শক্তিসমূহ ধর্মান্ধতাকে পুঁজি করে রাজনীতি করে আসছিলো। বিএনপি নেতা মোশারফ হোসেন মূলত সাখাওয়াত হোসেন টিটুকে কচুয়ার ধর্ম ভিত্তিক গ্রুপগুলোকে পক্ষে রাখার জন্য বিশেষ দায়িত্ব দিয়েছে। তারেক জিয়ার ঘনিষ্ঠ মোশারফ হোসেনের মাধ্যমেই কচুয়ার ডাক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন টিটোর সাথে তারেক জিয়ার সখ্যতা হয়।

এই অনলাইনটি প্রথম দিকে দল নিরপেক্ষতার ভান করলেও আস্তে আস্তে এটির মূল উদ্দেশ্য সবার সামনে পরিষ্কার হয়। এটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার এবং আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে প্রতিদিনই নানা অপপ্রচার চালাচ্ছে; সরকার ও আওয়ামী লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়াচ্ছে। অনলাইন পোর্টালটির নাম ‘কচুয়ার ডাক’ হলেও এটি মূলত চাঁদপুর তথা বৃহত্তর কুমিল্লাকে টার্গেট করে আওয়ামী লীগ বিরোধী অপপ্রচার চালিয়ে আসছে। বিভিন্ন ইস্যুতে অনলাইনটির সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন টিটো ফেসবুক লাইভে এসে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করে। সৌদি আরব থেকে আবু সায়ীদ নামে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার হওয়া যে কুলাঙ্গার ব্যক্তিটি কয়েকদিন আগে প্রকাশ্যে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলো, বৃহস্পতিবার এই কুলাঙ্গারটার প্রতি সমর্থন ও সহানুভূতি জানিয়ে ‘কচুয়ার ডাক’ এ নিউজ করা হয়।

কয়েকদিন আগে ঢাকায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী হেফাজত নেতা কুখ্যাত মামুনুল হককে গ্রেফতারের সাথে সাথেই ‘কচুয়ার ডাক’ সম্পাদক লন্ডন থেকে লাইভে এসে এই গ্রেফতারের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ করে এবং সরকারের বিরুদ্ধে নানা হুমকি ও বিদ্বেষপূর্ণ বক্তব্য দেয়। তার বক্তব্যে সোনারগাঁও রিসোর্টে সংঘটিত ঘটনায় মামুনুল হকের প্রতি চরম অন্যায় করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়। এই কারণে সে সরকারের তীব্র সমালোচনা করে এবং সরকারের বিরুদ্ধে নানা রকমের বিষোদগার করে।

সূত্র জানায়, তারেক জিয়া লন্ডনে আওয়ামী লীগ বিরোধী কিছু আইনজীবী ও পেশাজীবী নিয়ে প্রায়ই বাংলাদেশ বিরোধী শলা-পরামর্শ করে। ‘কচুয়ার ডাক’ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন এই সকল আলোচনায় সংক্রিয়ভাবে অংশ নেয়। তারেক জিয়া লন্ডনে আওয়ামী লীগ বিরোধী নানা গোষ্ঠীকে বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচারে ব্যবহার করছে। এর মধ্যে কিছু ব্যক্তি রয়েছে যারা কখনো বিএনপি, কখনো জামাত, কখনো হেফাজতের মুখোশ ধারণ করে। তাদের মূল কাজই হচ্ছে বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র, বাংলাদেশ বিরোধী প্রচারণা এবং এদের মিশনই হচ্ছে যেকোনো মূল্যে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সরকার কে উৎখাত করা।

জানা যায়, তারেক রহমান জামায়াত এবং হেফাজতের সাথে সমন্বয় রাখার জন্য যে কয়েকজন ব্যক্তিকে দায়িত্ব দিয়েছে, ‘কচুয়ার ডাক’ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন টিটো তাদের একজন। তারেক জিয়ার ঘনিষ্ঠ মোশারফ হোসেনই মূলত এই কচুয়ার ডাক অনলাইন পোর্টালের অর্থের যোগানদাতা। এই অনলাইন পোর্টালের ফেসবুক ভার্সনই বাংলাদেশে বেশি সক্রিয়। লন্ডন থেকে সাখাওয়াত হোসেন ও আরও দুইজন এবং বাংলাদেশ থেকে পাঁচজন ব্যক্তি এই অনলাইন পোর্টালের অ্যাডমিন হিসেবে কাজ করছে। তাদের পরিচয় ইতোমধ্যে উম্মোচিত হয়েছে। সাখাওয়াত হোসেন টিটো লন্ডনে কর্নেল (অব:) শহীদ সহ পলাতক কয়েকজন রাষ্ট্রবিরোধী ব্যক্তির সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখে এবং বাংলদেশ বিরোধী নানা ষড়যন্ত্র করে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি