মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১



করোনা নেই খালেদা জিয়ার, চরম অখুশি তারেক রহমান


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
29.04.2021

নিউজ ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসক ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন বলেছেন, খালেদা জিয়ার হার্টে কোনো সমস্যা নেই। করোনার কোনো উপসর্গও নেই। উনি এখন নন করোনা রোগী হিসেবেই চিকিৎসাধীন। কারণ আন্তর্জাতিক নিয়মেও দুই সপ্তাহ পর যদি রোগীর কোনো উপসর্গ না থাকে তাহলে তার আর করোনা টেস্টেরও প্রয়োজন নেই।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮টার দিকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

আর এমন খবর চাউর হবার পর থেকে চরম অখুশি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান। কারণ তিনি ভেবেছিলেন, করোনা আক্রান্ত হওয়ার সুবাদে হয়তো খালেদা জিয়া মারা যাবেন। যে সুযোগে তিনি হয়ে যাবেন দলের প্রধান। কিন্তু খালেদা জিয়া করোনা মুক্ত হওয়ায় তারেক রহমানের আশায় গুড়ে বালি। কারণ খালেদা জিয়া মরার আগ পর্যন্ত অন্তত তারেক রহমান দলের প্রধান হতে পারছেন না।

এ প্রসঙ্গে বিএনপির তারেক পন্থী এক নেতার সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, বলতে খারাপ শোনালেও সত্য হচ্ছে খালেদা জিয়া করোনা মুক্ত হওয়ায় অনেক দুঃখ পেয়েছে লন্ডন বিএনপি। ইচ্ছা ছিলো, এবার হয়তো তারেক ভাই দলের প্রধান হবেন। কিন্তু তা হলো না। তবে আমরা হাল ছাড়ছি না। খালেদা জিয়ার বয়স হয়েছে, তিনি আর বেশি দিন হয়তো বাঁচবেন না। ইনশাআল্লাহ, তারেক রহমানের জন্য ভালো ভবিষ্যৎ অপেক্ষা করছে।

এদিকে জানা যায়, মূলত তারেক রহমানের কারণেই করোয় আক্রান্ত হয়েছিলেন খালেদা জিয়া। নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, খালেদা জিয়ার আগ্রহ ছিলো টিকা নেয়ার। কারণ তার অধিকাংশ আত্মীয়ই টিকা নিয়েছেন। কিন্তু যখনই খালেদা জিয়াকে টিকা নেয়ার কথা বলা হতো, তখন তার পুত্রবধূ টিকা নিতে নিষেধ করতেন। খালেদার পুত্রবধূ ডা. জোবায়দা রহমানের দাবি, বর্তমানে একাধিক রোগে আক্রান্ত খালেদা জিয়া। এসময় করোনা টিকা নিলে হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই তার টিকা নেয়ার প্রয়োজন নেই। এ কথা বলার কয়েক দিন পরই করোনায় আক্রান্ত হন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি