মঙ্গলবার ১১ মে ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » মামুনুলের সঙ্গে আরও ৪-৫ নারীর সম্পর্ক থাকার তথ্য পেয়েছে পুলিশ



মামুনুলের সঙ্গে আরও ৪-৫ নারীর সম্পর্ক থাকার তথ্য পেয়েছে পুলিশ


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
05.05.2021

নিউজ ডেস্ক: হেফাজতে ইসলামের (বিলুপ্ত কমিটির) নেতা মামুনুল হকের সঙ্গে আরও চার থেকে পাঁচ জন নারীর সঙ্গে সম্পর্কের তথ্য পেয়েছে পুলিশ। যাদের সঙ্গে মামুনুল হক মানবিক বিয়ের সম্পর্ক গড়ে তুলে অনৈতিক কাজ করতেন বলেও তথ্য পাওয়া গেছে।

সোমবার (৩ মে) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মাহবুবুল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুবুল আলম সাংবাদিকদের বলেন, মাওলানা মামুনুল হকের আরও ৪ থেকে ৫ জন নারীর সঙ্গে সম্পর্কের তথ্য পাওয়া গেছে। যাদের সঙ্গে মানবিক বিয়ের সম্পর্ক গড়ে মামুনুল হক অনৈতিক কাজ করতেন। মামুনুল শুধু একটি বিয়ের কাবিননামা দেখাতে পেরেছেন। অন্য কোনোও বিয়ের কাবিননামা দেখাতে পারেননি তিনি। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

পুলিশে এ কর্মকর্তা আরও বলেন, তাবলিগ জামাতকে দুই ভাগ করার নেপথ্যেও মামুনুল হকের ইন্ধন ছিল। রমজানকে সামনে রেখে দেশজুড়ে হেফাজতের বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা ছিল। রমজান মাসে বদরের যুদ্ধ হয়েছিল। আরেকটি বদর যুদ্ধের ডাক দিয়েছিল হেফাজত। গত ২৬ মার্চে শুরু হওয়া সহিংসতা রমজান পর্যন্ত টেনে আনার পরিকল্পনা ছিল তাদের।

তিনি বলেন, বিভিন্ন মাদরাসায় পাওয়া দানের অর্থ নাশকতার কাজে ব্যবহার করতেন হেফাজতের বিলুপ্ত কমিটির নেতারা। হেফাজত নেতাদের জিজ্ঞাসাবাদে সিলেট ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নাশকতায় এ অর্থ ব্যবহারের প্রমাণ পেয়েছেন গোয়েন্দারা। মাদ্রাসার ছাত্রদের ব্যবহার করে আরেকটি শাপলা চত্বর তৈরি করে সরকার পতনের পরিকল্পনায় হেফাজতের বিলুপ্ত কমিটির নেতাদের ইন্ধন ছিল।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের একটি রিসোর্টে নারীসহ অবরুদ্ধ হয়েছিলেন হেফাজতে ইসলামের (বিলুপ্ত কমিটির) কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক। এতে দেশজুড়ে শুরু হয় তোলপাড়। ঘটনার দিন থেকেই ওই নারীকে নিজের দ্বিতীয় স্ত্রী বলে দাবি করেন মামুনুল হক। তবে মানবিক এ বিয়ের বৈধ কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেননি তিনি। সম্প্রতি ওই নারী সোনারগাঁ থানায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মামুনুল হকের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি