বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » ছাত্রলীগ নেতাকে লাথি দিলেন ছাত্রদলের ক্যাডার মানসুরা, ঢাবিতে নাশকতার চেষ্টা



ছাত্রলীগ নেতাকে লাথি দিলেন ছাত্রদলের ক্যাডার মানসুরা, ঢাবিতে নাশকতার চেষ্টা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
10.05.2021

নিজস্ব প্রতিবেদক: সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে প্রত্যাখ্যাত হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করছে বিএনপির ছাত্রসংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। এরই অংশ হিসেবে দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে অবস্থান কর্মসূচির নামে ছাত্রলীগের নেতাদের ওপর হামলা করেছে ছাত্রদলের ক্যাডাররা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে সোমবার বেলা দুইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়া করোনা আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। দেশেই তাঁর সুচিকিৎসা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের ডাক্তাররা। এরপরও খালেদা জিয়ার পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে সরকার চেষ্টা করেছে আইনি কোন প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়াকে বাইরে পাঠানো যায় কিনা। কিন্তু বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী সাজাপ্রাপ্ত কারও বাইরে চিকিৎসার সুযোগ না থাকায় খালেদা জিয়াকে দেশেই চিকিৎসা নিতে বলা হয়েছে। এরপরও বিএনপি আইন না মেনে সরকারের ওপর মিথ্যা দায় চাপানোর চেষ্টা করছে। এর ধারাবাহিকতায় বিএনপির ছাত্রসংগঠন ছাত্রদল খালেদা জিয়াকে দেশের বাইরে পাঠানোর দাবির নামে অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণা দেয়। যদিও জানা গেছে, এর আড়ালে ক্যাম্পাসে নাশকতার পরিকল্পনা করে ছাত্রদল।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বেলা দুইটার দিকে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অবস্থান কর্মসূচির প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের নেত্রী মানসুরা আলম, নেতা নাহিদুজ্জামান শিপনসহ তিন-চারজন। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির হামজা ভাস্কর্যের সামনে এসে জানতে চান কী নিয়ে আন্দোলন করছে ছাত্রদল। বন্ধ ক্যাম্পাসে অছাত্রদের নিয়ে ছাত্রদলের কর্মসূচির বিষয়ে জানতে চান ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে নির্বাচিত স্যার এ এফ রহমান হল সংসদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক (জিএস) আবদুর রহিম। কিন্তু ছাত্রদের নির্বাচিত এই প্রতিনিধির কথার উত্তর না দিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন ছাত্রদল নেত্রী মানসুরা আলম। একপর্যায়ে মানসুরা আমিরের পায়ে লাথি মারেন।

আমির হামজা বলেন, কর্মসূচির বিষয়ে জানতে গিয়েছিলাম। কিন্তু কথার উত্তর না দিয়ে আমাকে লাথি মেরেছে মানসুরা। সে যদি শিক্ষার্থীই হয় তবে এরকম আচরণ কেন? একজন ভালো মেয়ে হয়ে এভাবে ছেলেকে লাথি মারে? কোন ভালো শিক্ষার্থী যে ছাত্রদল করে না, মানসুরার আচরণই তাঁর প্রমাণ। আমরা এ বিষয়ে প্রক্টরের কাছে লিখিত অভিযোগ দিব। আমার ওপর হামলা করেছে ছাত্রদলের নেতা মানসুরা, আমি এর বিচার চাই।

এ ঘটনায় ছাত্রদলের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্যসচিব আমানউল্লাহ আমান বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার অনুমতি না দেওয়ার সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে একজন সংক্ষুব্ধ নারী হিসেবে মানসুরা আলম অবস্থান কর্মসূচির আয়োজন করেছিলেন। এসময় ছাত্রলীগের সাথে আমাদের একটু কথা কাটাকাটি হয়েছে। এর বেশি কিছু নয়।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, বয়সের ভারে ন্যুব্জ ছাত্রদলের নেতাদের ডাকে সাধারণ শিক্ষার্থীরা সাড়া দেন না। তারা শিক্ষার্থীদের অধিকার নিয়ে আন্দোলন না করে দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে নিয়ে ক্যাম্পাসে বসে পড়ার চেষ্টা করে। কিন্তু সাধারণ শিক্ষার্থীরা কেউই তাদের পাশে দাড়ায়নি। ছাত্রলীগের নেতা আমির হামজার ওপর ছাত্রদলের ক্যাডার মানসুরার হামলাই প্রমাণ করে তারা খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার দাবির নামে ক্যাম্পাসে নাশকতার চেষ্টা করছে।

সাদ্দাম ছাত্রদলের নেতাদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, এভাবে হামলা করবেন না। ছাত্রলীগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে মাঠে নামলে কিন্তু ছাত্রদলের বৃদ্ধ নেতারা পালানোর জায়গা খুঁজে পাবেন না।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি