শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » বিএনপি থেকে বহিষ্কার হয়েছিলো সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম



বিএনপি থেকে বহিষ্কার হয়েছিলো সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
18.05.2021

মির্জা ফখরুল ও রোজিনা

নিউজ ডেস্ক : সরকারি নথি চুরি করা প্রথম আলোর সিনিয়র সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম, সংবাদ কর্মী হবার আগে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির নেত্রী ছিলেন। পরে বিএনপির একাধিক গোপন নথি চুরি করার দায়ে তাকে দল থেকে ২০১০ সালে বহিষ্কার করা হয়েছিলো বলে জানা যায়। বিএনপির নয়াপল্টন কার্যালয়ের একটি সূত্র এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ প্রসঙ্গে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস বলেন, বিষয়টি ১০ বছর আগের ঘটনা। আমার খুব একটা মনে নেই। তবে প্রথম আলোর সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম বিএনপির কর্মী ছিলেন। এবং তিনি আমার সংগঠনের একনিষ্ঠ কর্মী ছিলেন। অনেকের মুখে শুনেছি তাকে চুরির দায়ে বহিষ্কার করা হয়েছে। কিন্তু বিষয়টি পুরোপুরি সত্য নয়। রোজিনা আমার কাছে এসে তার ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে বিএনপি থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন।

এই বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মহিলা দলের একাধিক নেত্রী বলেন, বলতে দ্বিধা নেই, সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম বিএনপির একজন অত্যন্ত মেধাবী কর্মী ছিলেন। তবে প্রথম থেকেই অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার দিকে ঝোঁক ছিলো তার। এ কারণেই হয়তো তিনি ২০১০ সালে বিএনপির কিছু নথি নিয়ে গিয়েছিলেন। তাকে চুরি বলা চলে না। তাই আমার মনে হয় দলের সিনিয়র নেতারা হয়তো ভুল করে রোজিনাকে দল থেকে বহিষ্কার করেছিলেন।

এদিকে বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপির মহাসচিব বিএনপি ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ঘটনাটি ১০ বছরের পুরনো। তারেক রহমানের হাওয়া ভবনের দুর্নীতির কিছু নথি নিয়ে তিনি নড়াচড়া করায় তাকে সন্দেহ হলে বহিষ্কার করা হয়। তবে বর্তমানে রোজিনা প্রথম আলো পত্রিকায় ভালো অবস্থানে আছেন। এখন আমি শুনছি, ১০ বছর আগে নাকি কোনো নথিপত্র চুরি করেননি তিনি।

উল্লেখ্য, সরকারি নথি চুরির দায়ে প্রথম আলোর সিনিয়র সাংবাদিক ও বিএনপির সাবেক নেতা রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। মামলা নং-১৬। সোমবার রাতে ডিএমপির শাহবাগ থানায় মামলাটি করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি