শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১



দেশেই চিকিৎসা নিবেন বেগম জিয়া, মতামত সিনিয়র নেতাদের


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
18.05.2021

নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দী বেগম জিয়া করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হবার পর তার বিদেশ যাত্রার কথা উঠলে পরিবারের সদস্যদের চাপে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছেন বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দ।

জানা গেছে, বিএনপি নেতৃবৃন্দ জামিন নিয়ে বেগম জিয়াকে দেশে রেখে সরকারকে চাপে রাখতে চাইলেও পরিবারের সদস্যরা মুক্তি নিয়ে বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে বারবার দাবি তোলায় বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে দলটিতে। বেগম জিয়ার পরিবারের সদস্যদের কারণে রাজনীতিতে বেশ সমালোচিত হচ্ছেন নেতারা, এমন গুঞ্জনও শোনা যাচ্ছে বেশ। ব্যক্তি বেগম জিয়ার চেয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন দেশের রাজনীতিতে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনায় তাকে দেশে রেখে চিকিৎসা করাতে চান মির্জা ফখরুলরা। এক্ষেত্রে তারেক রহমানেরও সায় রয়েছে বলে জানা গেছে। কিন্তু পরিবারের সদস্যরা কোন এক পক্ষের ইন্ধনে বেগম জিয়াকে বিদেশে নিয়ে যাওয়ার নামে দলে একধরণের চাপ সৃষ্টি করছেন। ফলে আগামীতে বিএনপির আন্দোলন ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলেও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন খোদ দলটির একাধিক সিনিয়র নেতারা।

এদিকে বেগম জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর নামে যা প্রচার করা হচ্ছে তা তারেক রহমানের সিদ্ধান্ত নয় এবং পরিবারের সদস্যরা বাড়াবাড়ি করছে বলে মনে করছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, বিএনপির প্রথম দাবি হলো বেগম জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। বেগম জিয়াও এটি চান। তিনি বিদেশে চিকিৎসার করাতে চান না। কিন্তু তার পরিবারের সদস্যরা বিশেষ করে উনার বোন বেগম সেলিমা ইসলাম প্রায়শই মুক্তি নিয়ে বিদেশে যাওয়ার ব্যাপারে কথা বলে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন। এটি কিন্তু তারেক রহমানের বক্তব্য বা দলীয় বক্তব্য নয়।

তিনি আরো বলেন, ম্যাডাম জিয়া নিজেই বিদেশে যেতে চান না। তিনি মুক্তি নিয়ে দেশেই চিকিৎসা করাতে চান। তিনি বিএনপির মতো বড় একটি রাজনৈতিক দলে নেত্রী, সুতরাং তাকে বিদেশে পাঠাতে পারলে অনেকের রাজনীতি করতে সুবিধা হয়-সেই ধারণা থেকেই কিন্তু জোর করে তাকে বিদেশে পাঠানোর ব্যাপারে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। আমার ধারণা কোন মহলের প্ররোচনায় পড়ে বেগম জিয়ার পরিবারের সদস্যরা বিদেশ যাওয়ার ব্যাপারে গুজব ছড়াচ্ছেন। বেগম জিয়াকে সাথে নিয়ে আমরা সরকারবিরোধী আন্দোলন করবো। তাকে বিদেশে রেখে নয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি