বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১



ঠেকানো যাচ্ছে না বিএনপির ভাঙন


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
18.05.2021

নিউজ ডেস্ক: বিএনপির ভাঙন ঠেকানোই যাচ্ছে না। বিএনপি থেকে একাধিক সিনিয়র নেতাকর্মী বেরিয়ে গিয়েছে। এছাড়া জোট থেকে বেরিয়ে গিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি) এবং ঐক্যফ্রন্ট থেকে কাদের সিদ্দিকী। বর্তমানে পাইপলাইনে আছেন এলডিপি ও জামায়াতে ইসলাম। এমতাবস্থায় হঠাৎ ২০ দলীয় জোটে ভাঙন শুরু হওয়ায় রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন।

বিএনপির দীর্ঘকালীন হতাশাজনক রাজনীতিতে জোটের ভবিষ্যৎ অনুধাবন করেই সরে যাচ্ছেন জোটের নেতারা, এমন গুঞ্জনে ভারি হয়ে পড়েছে জোটের রাজনীতি। এও শোনা যাচ্ছে যে, ভিন্ন কোন প্রলোভনে পড়ে বিএনপিকে চাপে রাখার জন্যই এসব করছেন জোটের নেতারা। একাধিক রাজনীতি সচেতন ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলে বিষয়গুলোর সম্পর্কে জানা গেছে।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষক বিভুরঞ্জন সরকার বলেন, ২০ দলীয় জোটের টানাপড়েন শুরু হয়েছে নির্বাচনের পূর্ব থেকেই। সেটি প্রকাশ্যে আসে পার্থ ও ডা. ইরানের পদত্যাগের পর। মূলত, ঐক্যফ্রন্ট গঠন নিয়ে ২০ দলের সঙ্গে টানাপড়েন শুরু হয় বিএনপির রাজনীতিতে। ২০ দলকে ‘অন্ধকারে’ রেখে ঐক্যফ্রন্ট গঠনের মধ্য দিয়ে জোটের মধ্যে ফাটল ধরায় বিএনপি। যার অংশ হিসেবে পার্থ জোট থেকে বের হয়ে যান। এরপর বিএনপি নেতা সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোরশেদ খান এবং অবসরপ্রাপ্ত লেঃ জেনারেল মাহবুবুর রহমানের পদত্যাগের পর বিএনপির ওপর আর আস্থা রাখতে পারছে না শরিক জোটগুলো। যার কারণ হিসেবে এখন হয়তো অন্য জোটগুলোও বিএনপি থেকে সরে যেতে চাচ্ছে।

ভাঙনের জন্য বিএনপিকে দায়ী করে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি ড. কর্নেল (অব. ) বলেন, শপথ নিয়ে যে ঝামেলা শুরু হয়েছিল তা শেষ হচ্ছে জোট ভাঙার মধ্য দিয়ে। ২০ দলকে উপেক্ষা করে ইচ্ছামতো সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। এরপর থেকে ২০ দলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি দেখে দলের আলোচনা করে আমরাও আমাদের সিদ্ধান্ত নেব।

তিনি আরো বলেন, ড. কামালকে অনুসরণ করে বিএনপি যে করুণ পরিণতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, সেটি কিন্তু দলটির নেতারা অনুধাবন করতে পারছেন না। সর্বস্বান্ত হয়ে যাওয়ার পরই হুশ ফিরবে বিএনপির। ততদিন মুখাপেক্ষী রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়ে পড়বে দলটি। সুতরাং ইজ্জত বাঁচাতে হলে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে আমাদেরকেও।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি