শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » আগামী ২০ বছরের মধ্যে ঘুরে দাঁড়াবে বিএনপি



আগামী ২০ বছরের মধ্যে ঘুরে দাঁড়াবে বিএনপি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
26.05.2021

নিউজ ডেস্ক: কেন্দ্র কিংবা তৃণমূল-কোথাও মাথা তুলে দাঁড়াতে পারছে না বিএনপি। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা এই ব্যর্থতাকে হাইকমান্ডের ভুলের মাসুল হিসেবে দেখলেও তৃণমূলের ব্যর্থতাকেই দায়ী করছে দলের হাইকমান্ড। ফলে তৃণমূলকে শক্তিশালী করতে নিষ্ক্রিয়দের বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে কেন্দ্রে তালিকা প্রেরণেরও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সূত্র বলছে, নিষ্ক্রিয় থাকায় ইতোমধ্যে নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। একই অভিযোগে শিগগিরই আরও তিনটি জেলার কমিটি ভেঙে দেয়া হবে। অনুরূপভাবে পুরো দেশের কমিটিতে নিষ্ক্রিয়দের তালিকা তৈরি করে তাদের বাদ দেয়া হবে।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, সাংগঠনিক জেলা কমিটি গঠনের পর তাদের কাছে দলের একটা প্রত্যাশা থাকে। প্রত্যাশিত ফলাফল সেই স্কোরে না যেতে পারলে জেলা কমিটি রাখার তো দরকার নেই। আমরা তৃণমূলকে শক্তিশালী করতে চাই। এতে যারা ব্যর্থ হবেন তাদের বিরুদ্ধে দল ব্যবস্থা নেবে।

নীতিনির্ধারকরা জানান, দল পুনর্গঠন নিয়ে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনা ছিলো- জেলায় ৩ মাসের জন্য প্রথমে আহ্বায়ক কমিটি করা। তারা ইউনিয়ন-থানাসহ সংশ্লিষ্ট জেলার সব পর্যায়ে আলোচনার মাধ্যমে অথবা সরাসরি নির্বাচনের মাধ্যমে নেতৃত্ব বের করবেন। সব শেষে জেলায় কাউন্সিল করে ভোটের মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন। অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের ক্ষেত্রেও প্রায় একই প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হবে।

বিএনপির একজন স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, যে উদ্দেশ্য নিয়ে দল পুনর্গঠনের নির্দেশনা ছিলো- তা জেলার নেতাদের ব্যর্থতার কারণে সফল হচ্ছে না এটি বলা ভুল। বরং কেন্দ্রীয় নেতাদের নিষ্ক্রিয়তাও দায়ী। কেন্দ্রের মতো বেশকিছু জেলার শীর্ষ নেতারাও পদ পেয়ে সক্রিয়ভাবে কাজ করে না। তাই ব্যবস্থা নিতে হলে উভয় ক্ষেত্রেই নেয়া দরকার। যদি শুধু তৃণমূলকে এই শাস্তিতে ফেলা হয় তবে তা দলের জন্য মোটেই ভালো হবে না। কেননা, সামনের হাল যেদিকে যায়, পেছনের হালও সেদিকে যায় বলে যে প্রবাদ আছে সেটি ধ্রুব সত্য। আর তা যদি সত্যেই হয় তবে কেন্দ্রীয় নেতাদের গাফিলতিতেও ব্যবস্থা নেয়া উচিত।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি