শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১



লন্ডন গিয়ে স্থায়ী হতে চান বেগম জিয়া


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
27.05.2021

নিউজ ডেস্ক : দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হওয়ার পর থেকে নতুন নাটক শুরু করেছেন। বর্তমানে তিনি উন্নত চিকিৎসা নিতে লন্ডন যেতে চান।

গুঞ্জন উঠেছে, দণ্ডিত তারেক রহমানের সাথে লন্ডনে বেগম জিয়া যোগ দিলে বিএনপি পুরোপুরি বিদেশনির্ভর রাজনৈতিক দলে পরিণত হবে। দলে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সাথে চেয়ারপারসনের বিদেশে বসে রাজনীতি বিএনপির জন্য ক্ষতিকারক হবে। রাজনৈতিক ইস্যুতে এক জায়গা থেকে দু‘জন দলীয় প্রধানের বিভক্তিপূর্ণ আদেশ, নির্দেশ দেশে মির্জা ফখরুলদের নাকানি-চুবানি খেতে হবে বলেও কথা উঠছে। মা-ছেলের বিদেশযাত্রায় বিএনপি দেশে নেতৃত্ব ও অভিভাবকহীন দলে পরিণত হবে এবং ধীরে ধীরে দলটি ক্ষয়িষ্ণু রাজনৈতিক দলে পরিণত হবে বলেও শঙ্কার কথা বলছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

এদিকে বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল গোপন সূত্র বলছে, বেগম জিয়া যদি বিদেশ চলে যান তবে বিএনপি সম্বলহীন হয়ে পড়বে। কারণ অনলাইনভিত্তিক রাজনীতি করে শক্তিশালী বিরোধী দলের বিপক্ষে রাজনীতি করাটা তখন বিএনপির জন্য প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়বে। কারণ, গত দুই বছরে তারেক রহমানের স্কাইপকেন্দ্রিক রাজনীতি বিএনপির চরম ক্ষতি করেছে বলে মনে করছে দলের বৃহৎ একটি অংশ। বেগম জিয়া বিদেশে চলে গেলে বিএনপির অস্তিত্ব চরম সংকটে পড়বে। কারণ বিদেশ থেকে সঠিকভাবে দল পরিচালনা করা যে সম্ভব নয় সেটি গত দু’বছরে তারেক রহমানের কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্ত প্রমাণ করেছে। তাই ব্যক্তিগত স্বার্থে বেগম জিয়ার দেশত্যাগ করাটা বিএনপির রাজনীতির জন্য বিষপানের মতো হবে বলেও মনে করছেন তারা।

অন্যদিকে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বেগম জিয়া ও তারেক রহমানের অনুপস্থিতি বিএনপিকে খুব বেশি ভোগাবে না। কারণ দুজনের অনুপস্থিতি মানিয়ে নিয়েছে দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা। মা ও ছেলের কারণে আজকে দলটিকে বিতর্কের মুখে পড়তে হয়েছে। তাই দেশে যদি বিএনপিকে নতুন করে রাজনীতিতে ঘুরে দাঁড়াতে হয় তবে বিতর্কিত নেতৃত্বকে সাময়িক আড়াল করতেই হবে। সেক্ষেত্রে বেগম জিয়ার লন্ডনে পাড়ি দেয়ার সিদ্ধান্ত বিএনপিকে অন্তত জনগণের অভিশাপ থেকে রক্ষা করতে পারে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি