শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » বিএনপির মহাসচিব পদে সিনিয়র নেতাদের দৃষ্টি



বিএনপির মহাসচিব পদে সিনিয়র নেতাদের দৃষ্টি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
28.05.2021

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরাজয়ের দুই বছর পার হলেও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির বেশ কয়েকজন সদস্যের মধ্যকার সম্পর্কের এখনো উন্নতি ঘটেনি। জানা গেছে, মহাসচিব পদ পাওয়ার প্রতিযোগিতা হিসেবে নেতাদের এই দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে।

মূলত নির্বাচনের আগে ঐক্যফ্রন্টের প্রতি অতিভক্তি এবং নির্বাচনের পর থেকে কামাল হোসেন নিশ্চুপ রয়েছেন। এই নীরবতাসহ মওদুদ-মোশাররফপন্থী নেতাদের করা নানা প্রশ্নবাণে বিরক্ত মির্জা ফখরুল।

বিএনপির বিভিন্ন দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, কারাগার থেকে খালেদা জিয়াকে বের করাসহ বিগত এক বছরে মির্জা ফখরুলের নেতৃত্বে বিএনপি কোনো কার্যকরী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারেনি। এমন ব্যর্থতা কুড়ে কুড়ে খাচ্ছে মহাসচিব মির্জা ফখরুলকে। তিনি নিজেও জানেন যে, তার চেয়ারের (পদ) দিকে অন্য নেতাদের চোখ পড়েছে। তাই বিএনপির ভেতরে অবস্থান করা শত্রুদের কাছে ভিড়তে দিতে চাচ্ছেন না মির্জা ফখরুল।

মওদুদ-মোশাররফরা মির্জা ফখরুলকে মহাসচিব পদ থেকে সরিয়ে দিতে অনেক দূর অগ্রসর হয়েছেন। এরই মধ্যে মহাসচিবকে বাদ দিয়ে এক দফা আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল জানান, এক দফা আন্দোলনের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। কার নেতৃত্বে এ আন্দোলনের ডাক সে বিষয়েও কিছু জানেন না।

বিএনপির এমন রাজনীতি নিতান্তই হতাশাজনক আখ্যা দিয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের স্থায়ী কমিটির অপর সদস্য বলেন, মওদুদ আহমেদ ও খন্দকার মোশাররফ আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন। সেই আন্দোলনকে মূলত বিএনপির বিরুদ্ধে বিএনপির আন্দোলন বলে অভিহিত করছেন মির্জা ফখরুল। আশা করছি, বিএনপি নেতারা দলের জন্য নিজের স্বার্থকে বড় করে না দেখে সামনে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবেন। নতুবা বিএনপি নামক দলটি আর বেশিদিন টিকতে পারবে না।

এ বিষয়ে বিএনপিপন্থী রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর একজন পুতুল মহাসচিব। তিনি তো খালেদা ও তারেকের দয়ায় মহাসচিব হয়েছেন। যদি তিনি দলের নির্বাচিত মহাসচিব হতেন তাহলে আজ এই দশা হতো না। দলের মধ্যে গণতন্ত্র না থাকায় বিএনপি’র আজ করুণ পরিণতি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি