শুক্রবার ১৮ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » খালেদার মুক্তি মানেই তারেক সাম্রাজ্যের অবসান



খালেদার মুক্তি মানেই তারেক সাম্রাজ্যের অবসান


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
28.05.2021

নিউজ ডেস্ক: ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শাস্তি ভোগ করার বয়স তিন বছর হয়েছে। অথচ তার মুক্তির লক্ষ্যে দলের পক্ষ থেকে ‘লোক দেখানো’ কর্মসূচি গ্রহণ ব্যতীত আন্তরিকভাবে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলে জানা গেছে। এমনকি বিএনপিপন্থী আইনজীবীরাও অনাগ্রহ দেখিয়ে পাশ কাটিয়ে গেছেন।

এদিকে সূত্র বলছে, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানও চান না এখনই তার মায়ের মুক্তি হোক। কারণ খালেদার মুক্তি মানেই তারেক সাম্রাজ্যের অবসান। এদিকে খালেদার কারাবাসের এই দীর্ঘ সময়েও দল গোছাতে পারেনি বিএনপি। উল্টো সৃষ্টি হয়েছে বিভক্তি, আস্থাহীনতা এবং জ্যেষ্ঠ নেতাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব। এসব দেখে নেতাকর্মীরা হতাশ হয়ে দল ত্যাগের মত কঠিন সিদ্ধান্তে উপনীত হচ্ছেন। তারা বলছেন, এখন আর আগের মত আবেগ-ভালোবাসা নেই নেত্রীকে নিয়ে। অথচ এসবে নজর নেই দলীয় নীতিনির্ধারকদের।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, মাঠের রাজনীতিতে পুরোপুরি ব্যর্থ দল বিএনপি তার রাজনৈতিক আবেদন হারিয়েছে বহু আগেই। এর কারণ সাংগঠনিক দুর্বলতা, দলীয় আন্তঃকোন্দল এবং নেতাকর্মীদের নিজের আখের গোছানোর মনোভাব। তৃণমূলে পড়েছে এর প্রভাব। সবার মধ্যে বিরাজ করছে ‘গাছাড়া’ ভাব।

বিএনপির নেতাকর্মীরা জানান, টানা ১৪ বছরের বেশি দল ক্ষমতার বাইরে দল। নেই কোন শক্তিশালী রাজনৈতিক কর্মসূচি। এ কারণে কারো সঙ্গে কারো তেমন যোগাযোগ নেই। দলীয় কার্যালয়গুলোতেও অধিকাংশ সময় তালা ঝোলে। মিছিল-মিটিং-সমাবেশ তো হয়ই না। যাও দু’একটা ডাকা হয়, সেখানেও নেতাকর্মীদের উপস্থিতি থাকে হাতেগোনা। সবমিলিয়ে এটাই প্রমাণ হয়, সবার মাঝে বিএনপিপ্রীতি কমে গেছে। কারণ, সবাই ধরেই নিয়েছে দল আর কোনদিনই ক্ষমতার স্বাদ পাবে না।

এদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে দলের জ্যেষ্ঠ নেতারা বলছেন, এই অভিযোগ পুরোপুরি সত্য নয়। সবার আস্থা-ভালোবাসা উঠে যায়নি দল কিংবা নেত্রী থেকে। তবে হ্যাঁ, এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে, একটা অংশ দল ও নেত্রীর উপরে বিশ্বাস হারিয়ে দলীয় কর্মকাণ্ড থেকে দূরে রয়েছে। তাদের ধারণা, বিএনপির রাজনীতি শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু সে ধারণা ভুল।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বিএনপির রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড স্বচ্ছভাবে প্রমাণ করে তার ভবিষ্যৎ কী? এজন্য দলীয় নেতাকর্মীরা হাল ছেড়ে দিয়ে নিজেদের ভালো হয় এমন কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। কারণ তারা বুঝে গেছেন, আশার আর কোন প্রদীপ নেই। যা ছিলো তা তারেক রহমান নিজেই নিভিয়ে দিয়েছেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি