শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » গর্জে উঠেছে বিএনপির বহিষ্কার হওয়া নেতারা



গর্জে উঠেছে বিএনপির বহিষ্কার হওয়া নেতারা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
02.06.2021

নিউজ ডেস্ক : দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও সংগঠনবিরোধী কার্যকলাপের জন্য তিন উপজেলার ৯ নেতাকে দলের প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করেছে বিএনপি। মঙ্গলবার (পহেলা মে) রাতে দলের সহ-দপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদের স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তাদের বহিষ্কারের কথা জানানো হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে তৃণমূলের ওই বহিষ্কৃত নেতারা স্থানীয়ভাবে বিএনপিকে প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় সদর উপজেলা বিএনপির সদ্য বহিষ্কৃত সভাপতি আবু দাউদ প্রধান বলেন, ‘আমি শুনেছি আমাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তবে বহিষ্কারের চিঠি এখনো হাতে পাইনি। আসলে বিএনপিকে বিভক্ত করতে চায় এমন নেতারাই কেন্দ্রীয় কমিটিতে বসে ভ্রান্ত সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। তারা মাঠপর্যায়ে জরিপ না করেই অহেতুক দলের তৃণমূলকে বিক্ষুব্ধ করে তুলছেন। উপজেলা নির্বাচনকে কখনোই দলীয় দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখা ঠিক হচ্ছে না। এটি সম্পূর্ণ স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচন। যে নির্বাচনে গ্রামের সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ তার নিজ এলাকার জনপ্রতিনিধিদের বাছাই করে থাকেন। অন্যায়ভাবে এই বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি আমি।’

বহিষ্কৃত নেতা আবু দাউদ প্রধান আরো বলেন, পঞ্চগড় জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদের থেকে টাকা খেয়ে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে কেন্দ্রীয় নেতা রিজভী আহমেদ আমাকে সহ আরও ৯ নেতাকে বহিষ্কার করেছে। অথচ বিএনপির রাজনীতিতে স্থানীয় পর্যায়ে খুব কম নেতাই আছে যারা আমার চেয়ে বয়োজ্যেষ্ঠ। কেন্দ্রীয় বিএনপির এমন সিদ্ধান্তে আমি অপমান বোধ করছি। এর খেসারত বিএনপিকে দিতে হবে। পঞ্চগড়ে বিএনপিকে সাংগঠনিকভাবে প্রতিহত করা হবে।’

বহিষ্কৃত হয়েছেন জানতে পেরে সুনামগঞ্জ জেলা মহিলা দলের আহ্বায়ক মদিনা আক্তার বলেন, ‘কেন্দ্র থেকে কোন সতর্কবার্তা না দিয়ে আমাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণ গঠনতন্ত্রবিরোধী কাজ। স্থানীয় পর্যায়ের এসব নির্বাচন না করলে বিএনপির অস্তিত্ব ধ্বংস হয়ে যাবে। আর এ নির্বাচনকে শুধুমাত্র জাতীয় রাজনীতির দৃষ্টিতে দেখলে চরম ভুল হবে। আসলে জাতীয় নির্বাচনের থেকে স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচন ভিন্ন। আর আমাকে অন্যায়ভাবে যেহেতু দলের চাটুকার নেতারা বহিষ্কার করেছেন ফলে এর জবাব আমি দেব।’

সূত্র বলছে, তিন উপজেলায় ৯ নেতার প্রত্যেকেই প্রকাশ্যে বিএনপির এই হঠকারী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছেন। প্রত্যেক বহিষ্কৃত বিএনপি নেতা স্থানীয়ভাবে বিএনপির নষ্ট রাজনীতিকে প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছেন। সুনামগঞ্জ, পিরোজপুর ও পঞ্চগড় বিএনপির এসব বহিষ্কৃত নেতা তৃণমূলকে সাথে নিয়ে কেন্দ্রীয় বিএনপির বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগঠিত করবেন বলেও জানা গেছে।

এ প্রসঙ্গে পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলা বিএনপির বহিষ্কৃত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাফি চৌধুরী বলেন, স্থানীয় নির্বাচন নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতারা যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তা কখনোই মেনে নেয়া যায় না। বিএনপির এই অগণতান্ত্রিক রাজনীতির বিরুদ্ধে পিরোজপুরে প্রতিরোধের দুর্গ গড়ে তোলা হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি