শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 4 » নতুন করে বিদেশ যাওয়ার আবেদন করবেন বেগম জিয়া



নতুন করে বিদেশ যাওয়ার আবেদন করবেন বেগম জিয়া


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
06.06.2021

নিউজ ডেস্ক: এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বেগম জিয়া বিদেশ যাওয়ার জন্য আবার নতুন করে আবেদন করবেন। বেগম জিয়ার পরিবারের একাধিক সদস্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বেগম জিয়া গত পরশু সিসিইউ থেকে সাধারণ কেবিনে এসেছেন। তবে এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলছেন, এখনো তার অবস্থা স্থিতিশীল নয়। নানা রকম দীর্ঘমেয়াদী জটিলতায় ভুগছেন তিনি। তবে বেগম জিয়া এখন শঙ্কামুক্ত বলেও এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলছেন। বেগম খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসক প্যানেলের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করেছেন।

বেগম খালেদা জিয়ার যে সমস্ত অসুস্থতাগুলো রয়েছে বিশেষত উচ্চরক্তচাপ, ডায়াবেটিস এবং আর্থ্রাইটিসের সমস্যা ইত্যাদি দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসা প্রয়োজন। যেহেতু বেগম জিয়া অতীতে এ সমস্ত চিকিৎসা বিদেশেই নিতেন সে কারণেই তার উন্নত চিকিৎসা বিদেশে হওয়া উচিত মর্মে তারা একটি প্রত্যয়নপত্র দেবেন বলে জানা গেছে। এই প্রত্যয়ন পত্র পাওয়ার পরপরই বেগম জিয়ার পরিবারের পক্ষ থেকে বিদেশে যাওয়ার জন্য আবেদন করা হবে। বেগম জিয়ার পরিবারের সদস্যরা বলছেন যে, গতবার যে বিদেশ যাওয়ার আবেদন করা হয়েছিল সেই আবেদনের সঙ্গে এই আবেদনের মৌলিক কিছু পার্থক্য থাকবে। গতবারের আবেদনে বেগম জিয়া কোন দেশে যেতে চান তা উল্লেখ করা হয়নি এবং কতদিনের জন্য যেতে চান সেটাও উল্লেখ করা হয়নি।

এবার আবেদনে এই দুটি বিষয় সুনির্দিষ্ট করা হবে। বেগম জিয়া উন্নত চিকিৎসার জন্য তিনটি দেশের নাম প্রস্তাব করতে পারেন বলে তার পারিবারিক সূত্র বলছে। এগুলো হলো- সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং সিঙ্গাপুর। ইতিমধ্যে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের সঙ্গে খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার যোগাযোগ করেছেন এবং তারা খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা দিতে সম্মত হয়েছেন বলেও জানিয়েছেন। খালেদা জিয়ার আবেদনের সঙ্গে এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকদের সুপারিশ এবং সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে যে চিকিৎসা দিতে পারে সেই সুপারিশও সংযুক্ত করা হবে।

তার পরিবারের সদস্যরা বলছেন যে, খালেদা জিয়ার গতবারের আবেদন নাকচ করা হয়েছিল মূলত তিনি লন্ডন যেতে পারেন এই শঙ্কা থেকে। লন্ডনে তারেক রহমান অবস্থান করছেন। খালেদা জিয়া লন্ডনে গেলে তারেক রহমান সেখানে সরকার বিরোধী নানারকম ষড়যন্ত্র শুরু করবেন এবং রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টি করবেন, এরকম তথ্যের ভিত্তিতেই শেষ পর্যন্ত সরকার খালেদা জিয়াকে বিদেশে যেতে অনুমতি দেননি বলে বেগম জিয়ার পরিবারের সদস্যরা মনে করছেন। এ কারণে এবারের আবেদনে লন্ডনে যাওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ ভাবে নাকচ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও এবারের আবেদনে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় থাকছে বলে জানা গেছে। সেটি হলো, বেগম জিয়া ছয় মাসের জন্য উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে চান মর্মে আবেদনে উল্লেখ করা হবে।

অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশ যাওয়ার বিষয়টিও সরকার গ্রহণযোগ্য মনে করেনি। আর এ কারণেই একটি নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। তবে সরকারের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো বলছে, বেগম জিয়ার আবেদন যে কারণে নাকচ করা হয়েছিল ঠিক একই কারণে এই আবেদনটি গ্রহণযোগ্য বিবেচিত নাও হতে পারে।

তবে সরকারের বিভিন্ন সূত্র বলছে যে, নির্বাহী আদেশে সরকার সবকিছুই করতে পারে। আর শেষ পর্যন্ত বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দেবেন কি দেবে না এটি নির্ভর করছে একটি রাজনৈতিক মেরুকরণের ওপর। রাজনৈতিক মেরুকরণের সমীকরণ যদি মেলে তাহলে বেগম জিয়াকে হয়তো বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দেয়া হবে। তবে এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া হয়নি। সরকারের দায়িত্বশীল সূত্র বলছে যে, এখন পর্যন্ত তারা এরকম কোন আবেদন পায়নি। এরকম আবেদন পাওয়ার পরপরই এ বিষয়টি বিবেচনায় নেওয়া হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি