বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » ‘তারেক উপযুক্ত নন’ মন্তব্য বিএনপির সিনিয়র নেতাদের



‘তারেক উপযুক্ত নন’ মন্তব্য বিএনপির সিনিয়র নেতাদের


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
08.06.2021

নিউজ ডেস্ক: তারেক রহমানের ব্যাপারে নেতিবাচক মনোভাব রয়েছে বিএনপির সিনিয়র নেতাদের। তাদের মতে বিএনপির নেতৃত্ব গ্রহণের জন্য এখনো ‘উপযুক্ত নন তারেক’।

বিশেষ করে জিয়াউর রহমানের সময় যারা রাজনীতি শুরু করেছিলেন এবং দীর্ঘদিন বিএনপির বিভিন্ন সংকটে ভূমিকা রেখেছেন তারা তারেক জিয়ার নেতৃত্ব মেনে নিতে পারছেন না। বিভিন্ন ঘটনায় তারেক জিয়ার সঙ্গে তাদের দূরত্ব সুস্পষ্ট দেখা যায়।

এদিকে রোববার তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে ডা. জাফরুল্লাহ বলেছেন, বিদেশে বইসা ওহি পাঠাইয়া লাভ হবে না। তারেকের চেয়ে তার বড় মেয়ের মধ্যে আমি খালেদা জিয়ার গুণ দেখতে পাই। সে দেশে এলে রাজনীতিতে ভালো করবে। আজ যদি আল্লাহ না করুক, খালেদা জিয়া সুস্থ হয়ে না আসেন, তাহলে তাদের (বিএনপি) কপালে দুঃখ আছে।

বিএনপির এক শীর্ষ নেতা বলেছেন, তারেক জিয়ার মূল শক্তি হল তৃণমূল। তৃণমূলের সঙ্গে তিনি কথা বলেন। কিন্তু দলের জাতীয় পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে তারেকের দূরত্ব রয়েছে। সিনিয়র নেতৃবৃন্দ তারেককে নেতৃত্বে দেখার ব্যাপারে আপত্তিও প্রকাশ করেন প্রায়ই।

তিনি আরো বলেন, মির্জা আব্বাস বিএনপির প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য। তার সঙ্গে তারেক জিয়ার সাম্প্রতিক দ্বৈরথের খবর পাওয়া যায়। বিশেষ করে ইলিয়াস আলীর গুম নিয়ে তিনি প্রকাশ্যে যে মন্তব্য করেছিলেন এজন্য তাকে শোকজ করা হয়েছিল। এই শোকজের তিনি জবাব দিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত বিএনপি নেতাদের চাপে তারেক জিয়া মির্জা আব্বাসের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেননি। তবে এই ঘটনা দুজনের সম্পর্ককে তলানিতে নিয়ে গেছে। যারা তারেক জিয়াকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিএনপি`র চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান না তাদের মধ্যে অন্যতম মির্জা আব্বাস।

বিএনপি নেতা বলেন, জিয়াউর রহমানের সঙ্গে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ঘনিষ্ঠতা ছিল। খালেদা জিয়ার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ এবং আস্থাভাজন নেতা হিসেবে তিনি পরিচিত। তারেক জিয়া কর্তৃক বিএনপি`র নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের আগে পর্যন্ত ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ছিলেন অন্যতম নীতিনির্ধারক। কিন্তু এখন তিনি অনেকটাই কোণঠাসা অবস্থায় আছেন শুধুমাত্র তারেকের জন্য। কিন্তু দলের ভেতরে তার প্রভাব রয়েছে এবং সকলের কাছেই তিনি একজন শ্রদ্ধেয় নেতা। তিনিও চান তারেক নেতৃত্বে আসুক। সঙ্গে তার অনুসারীরাও।

এই নেতা আরও বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত আব্দুল্লাহ আল নোমান। তারেক জিয়ার কারণেই আব্দুল্লাহ আল নোমান রাজনীতিতে কোণঠাসা হয়েছেন এবং চট্টগ্রামে তিনি অবিসংবাদিত নেতা হওয়ার স্বত্বেও তার বদলে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে স্থায়ী কমিটির সদস্য করা হয়েছে। এটি নিয়ে আব্দুল্লাহ আল নোমান অত্যন্ত অসন্তুষ্ট। এখন তিনি নানা রকম শারীরিক অসুস্থতার মধ্যে থাকলেও বিএনপি`র জন্য তিনি একজন মূল্যবান সম্পদ বলে মনে করা হয়। তিনিও খালেদা জিয়ার পরিবর্তে তারেক জিয়ার চেয়ারম্যান হওয়ার বিষয়টি নিয়ে আপত্তি তুলেছেন।

এছাড়াও বিএনপিতে অনেকে আছেন যারা তারেক রহমানের নেতৃত্বে আসার বিপক্ষে। তারা মনে করেন, তারেক জিয়া বিএনপির প্রধান হওয়ার জন্য এখনও উপযুক্ত নন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি