শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১



রিজভী যেভাবে নাচাচ্ছে বিএনপিকে


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
10.06.2021

নিউজ ডেস্ক : বিএনপির চলমান রাজনৈতিক সংকট বিশেষ করে ছাত্রদল নিয়ে অসন্তোষ, দলীয় তথ্য পাচার, ২০ দল ও ঐক্যফ্রন্ট বিরোধী প্রচারণার পেছনে রিজভী আহমেদকে দায়ী করছেন নেতৃবৃন্দ।

তাদের মতে, বিএনপির আগামী কাউন্সিলে গুরুত্বপূর্ণ পদ বাগিয়ে দলের উপর কর্তৃত্ব ফলাতে রিজভী পরিকল্পিতভাবে দলের অভ্যন্তরে অসন্তোষ সৃষ্টির চেষ্টা করছেন। তারেক রহমানকে ভুল-ভাল বুঝিয়ে বিএনপির সিনিয়র নেতাদের ব্যর্থ প্রমাণ করে বিএনপির কর্তৃত্ব দখল করতেই নিজস্ব সমর্থকদের নিয়ে গোপন মিশন বাস্তবায়নে হাত ধুয়ে নেমেছেন রিজভী। রিজভীকে সময় মতো থামানো না গেলে বিএনপির অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও বিভেদ মহামারি আকারে রূপ নিতে পারে বলেও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তারা।

বিএনপির চলমান সংকটের জন্য রিজভী আহমেদকে দায়ী করে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বলেন, ছাত্রদলের চলমান সংকটকে আরো গভীর করেছেন রিজভী। শুনেছি, তার প্ররোচনায় ছাত্রদলের কমিটি নির্বাচনে ঘোষিত ভোটার তালিকায় ভুয়া, অছাত্র, ব্যবসায়ী ও তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসীদের স্থান দেয়া হয়েছে। এই ভুল তালিকা নিয়ে নতুন করে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে ছাত্রদলে। পাশাপাশি দলের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচার ও নেতা-কর্মীদের পেছনে দলীয় গোয়েন্দা নিয়োগ করার মতো গুরুতর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

তিনি আরো বলেন, ছাত্রদলের আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, তারেক রহমানের নাম ভাঙিয়ে ইচ্ছামতো কমিটি গঠনের পাঁয়তারায় হাত রয়েছে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভীর। সুতরাং দলের ভাঙ্গন রোধ করতে হলে এবং বিএনপিকে ষড়যন্ত্রকারীদের হাত থেকে রক্ষা করতে হলে অবশ্যই রিজভীর মতো বর্ণচোরাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত।

এদিকে, দলের অভ্যন্তরে কোন্দল সৃষ্টির বিষয়টি অস্বীকার করে রিজভী বলেন, আমি অসুস্থ। এর পরও দলীয় কার্যক্রমে অংশ নিচ্ছি। আমাকে যে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে, আমি সেটি পালন করছি। এখন যারা বিএনপিতে সুবিধা আদায় করতে পারছেন না, তারাই আমার বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করছেন। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশনায় দলকে বাঁচাতে প্রয়োজনে আমি আরো কঠোর হবো।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি