শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » স্বাস্থ্যের বেহাল দশার জন্য খালেদাকে দায়ী করলেন ডা. জাফরুল্লাহ!



স্বাস্থ্যের বেহাল দশার জন্য খালেদাকে দায়ী করলেন ডা. জাফরুল্লাহ!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
10.06.2021

ডেস্ক রিপোর্ট: চারদলীয় জোট সরকারের সময় দেশের স্বাস্থ্যখাতের অব্যবস্থাপনা এবং মানুষের ভোগান্তির জন্য বিএনপির চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে দায়ী করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। খালেদা জিয়া জনগণের জন্য ওষুধ নীতি তৈরি না করে ব্যবসায়ীদের স্বার্থ দেখেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেছেন,‘খালেদা জিয়ার আমলে ভুলের কারণে জনগণের এখানে ভোগান্তি হয়েছে। অগ্রিম আয়কর দুর্নীতির একটি বড় কারণ। স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়িয়ে লাভ হবে না। যদি না কিছু মৌলিক পরিবর্তন আনা যায়।’

বৃহস্পতিবার রাজধানীর গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতাল মিলনায়তনে ‘সচেতন নাগরিকদের দৃষ্টিতে ২০২১-২০২২ জাতীয় বাজেট’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিএনপি সমর্থক বুদ্ধিজীবী হিসেবে পরিচিত। কিন্তু এরপরও তিনিও খালেদা জিয়ার আমলের দুর্নীতিকে আড়াল না করে সমালোচনা কেন করছেন জানতে চাইলে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, গণতান্ত্রিক দেশে সবাই সবার সমালোচনা করা উচিত। আমি বিএনপির সাপোর্টার বলেই বিএনপির শুধু গুণগান করব তা তো না। বিএনপির আমলে যে সকল ভুল হয়েছে, তাদের আমলে যেসব দুর্নীতি হয়েছে দেশের স্বার্থে এসব বলা উচিত। না হলে বিএনপিই পিছিয়ে পড়বে। বিএনপির উচিত তাদের আমলের সকল অন্যায়ের জন্য ক্ষমা স্বীকার করে জনগণের কাছে যাওয়া। তাহলে তারা জনগণের সমর্থন পাবে। নয়ত শুধু শুধু সরকারের বিরোধিতা করে আন্দোলনের ডাক দিলে জনগণ সমর্থন করবে না।

বর্তমানে দেশকে করোনামুক্ত করতে সরকার বিভিন্নভাবে চেষ্টা করছে। এরপরও কিছু আমলাদের কারণে জনগণ সরকারের সব উদ্যোগের সুফল না পাওয়ার পেছনে খালেদা জিয়ার আমলের ভুল সিদ্ধান্তগুলোর প্রভাব আছে বলে মন্তব্য করেন ডা. জাফরুল্লাহ।

এদিকে ডা. জাফরুল্লাহর এক বক্তব্যের পর ব্যাপক চাপে পড়েছে বিএনপির নেতারা। দলটির নেতারা পড়েছেন ব্যাপক চাপে। ডা. জাফরুল্লাহ বিভিন্ন সময় বিএনপির পক্ষে কথা বলে থাকেন। এখন তার মুখে খালেদা জিয়ার সমালোচনা দলটির নেতারা হজম করতেও পারছেন না, অস্বীকার করতেও পারছেন না।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, জাফরুল্লাহ ভাই অনেক সময় মুখ ফসকে নানা কথা বলে ফেলেন। তার বয়স হয়েছে। সব কথাকে গুরুত্ব দেওয়ার কিছু নাই।

বিশ্লেষকরা বলছেন, ডা. জাফরুল্লাহ বিএনপির সমর্থক হলেও কিছুটা সততার কারণে মির্জা ফখরুলদের মত পুরোপুরি মিথ্যা বলতে পারেন না। তাই মাঝেমাঝে বিএনপির আমলের দুর্নীতির কথা বলেন। এটা তো সত্য বিএনপি আমলে সব প্রকল্পে তারেক রহমানকে ১০ ভাগ ঘুষ দিতে হত। হাওয়া ভবনের কথা সবার জানা। বিএনপির আমলে দেশ দুর্নীতিতে বারবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এসব সত্য তো ভোলা যাবে না। বিএনপি জন্ম থেকেই ব্যবসায়ী-আমলাদের দল উল্লেখ করে বিশ্লেষকরা বলেন, খালেদা জিয়া যে ব্যবসায়ীর স্বার্থে ওষুধ নীতি করেছিলেন সেই সত্য তুলে ধরেছেন ডা. জাফরুল্লাহ। বিএনপির বুদ্ধিজীবী হলেও খালেদা জিয়ার ভুল তুলে ধরে তিনি ঠিক কাজই করেছেন। বিএনপির নেতাদের উচিত হবে, ডা. জাফরুল্লাহর মত তাদের আমলের অন্যায়-দুর্নীতি স্বীকার করে জনগণের কাছে মাফ চাওয়া। এছাড়া বিএনপির যতই আন্দোলন বলে মুখে ফেনা তুলুক না কেন, একটা দুর্নীতিবাজ, আগুনসন্ত্রাসী এবং রাজাকারের পৃষ্ঠপোষক দলের পেছনে জনগণ কখনই নামবে না।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি