শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » ভোটের পক্ষে বলে তারেকের রোষানলে মির্জা ফখরুল!



ভোটের পক্ষে বলে তারেকের রোষানলে মির্জা ফখরুল!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
10.06.2021

ডেস্ক রিপোর্ট: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন ‘আমরা গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। আমরা গণতন্ত্র ফেরত চাই। আমরা ভোট দিয়ে সরকার পরিবর্তন করতে চাই। আমরা গায়ের জোড়ে সরকার পরিবর্তন করতে চাই না। আর সেই ভোটটা যেন দিতে পারি, তা নিশ্চিত করতে চাই।’

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কথা বলেন। সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখা এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

এদিকে বক্তব্যের পরই বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের রোষানলে পড়েছেন মির্জা ফখরুল। জানা গেছে, টানা নির্বাচনে হারতে হারতে বিএনপি নির্বাচন বর্জন করে সরকারের ঘাড়ে দোষ চাপানোর রাজনীতি করছে। গত বছর নির্বাচনে অংশ নিলেও এবছর তারেক রহমান নির্দেশ দিয়েছেন বিএনপির কোন নেতা নির্বাচনে অংশ নেবে না। ফলে নেতারা ভোটের পক্ষেও কথা বলছেন না। কিন্তু আজ মির্জা ফখরুল নির্দেশ অমান্য করায় ভীষণ ক্ষুব্ধ হয়েছেন তারেক।

সভায় অংশ নেওয়া বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটি সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমাদের নেতা তারেক সাহেবের নির্দেশ আছে ভোটে অংশ নেওয়া যাবে না, তাই আমরা ভোটের পক্ষে কথা বলি না। আর নেতা যেখানে বলেন না, সেখানে মির্জা সাহেব কী মনে করে ভোটের কথা বললেন জানি না। শুনেছি মিটিংয়ের পরে লন্ডন থেকে তারেক জিয়া ফখরুল সাহেবকে ফোন করে ঝাড়ি দিয়েছেন। তাকে সাবধানে কথা বলারও নির্দেশ দিয়েছেন তারেক রহমান।

সূত্র জানায়, বিএনপির নেতারা যেন হালছাড়া নৌকার মাঝিতে পরিণত হয়েছেন। একই ইস্যুতে বিভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন কথা বলে হাসির খোরাক হচ্ছেন দলটির নেতারা। আরেকদিকে দলের ভিতরেও নেতাদের কথায় ঐক্যমত নেই। এতে কখন কী বলবেন এ নিয়ে বিএনপির নেতারা আতঙ্কে থাকেন। তারেকের অনুমতি ছাড়া কোন বিষয়ে নিজের মতামত জানিয়ে বিপদে পড়ার ভয়ে বেশিরভাগ নেতাই আগ বাড়িয়ে কথা বলেন না। তবে মির্জা ফখরুল মাঝেমাঝে বলেন। কারণ, খালেদা জিয়ার অসুস্থতা এবং তারেকের বিদেশে থাকার সুযোগে বিএনপির সব নিয়ন্ত্রণের সুপ্ত ইচ্ছা আছে তার মধ্যে।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বলেন, মির্জা ফখরুল দলে কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে চাচ্ছেন। এজন্য নেতার অনুমতি ছাড়া ভোটের পক্ষে কথা বলেছেন। এভাবে বিএনপিকে বিপদে ফেলার জন্য তাকে দলের মহাসচিব পদ থেকে সরিয়ে দিতে অনুরোধ করব তারেক রহমানের কাছে।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি