মঙ্গলবার ২৭ জুলাই ২০২১



করোনায় আক্রান্ত জামায়াত, মুক্তির অপেক্ষায় বিএনপি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
16.06.2021

নিউজ ডেস্ক : এক বছরের বেশি সময় ধরে করোনার কারণে দেশে কার্যত কোনো রাজনৈতিক তৎপরতা নেই। আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির বাইরে হেফাজতে ইসলাম নানা কারণে আলোচনায় থাকলেও অন্য কোনো দলের কোনো খবর নেই। বাংলাদেশের রাজনীতিতে অনেকের ‘মাথা ব্যথার কারণ’ যে জামায়াতে ইসলাম, তারও ‘বেখবর’ অবস্থা চলছে। তাহলে জামায়াত কি রাজনীতির মাঠ থেকে ‘নিশ্চিহ্ন’ হয়ে গেল, নাকি তলে তলে তলা গোছানোর কাজ করে চলেছে

এ বিষয়ে জানতে কথা হয় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে। তিনি বলেন, রাজনীতি একটি ওপেন প্লেস। যার ইচ্ছা হয়, সে থাকবে। যার ইচ্ছা হবে না, সে চলে যাবে। এখানে জোরাজুরির কিছু নেই। জামায়াতে ইসলামের কার্যকলাপের বোঝা যাচ্ছে তাদের রাজনীতি করার আর ইচ্ছা নেই। যদি তারা আমাদের ছেড়ে রাজনীতি করতে চায়, তবে এতে আমাদের কোনো সমস্যা নেই। কারণ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাদের হওয়া না হওয়া রাজনীতিতে কোনো প্রভাব ফেলতে পারেনি। অতএব জামায়াত নিয়ে আমাদের মাথা ব্যথা নেই।

এ প্রসঙ্গে রাজনীতি বিশ্লেষক বিভুরঞ্জন সরকারের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, মাস কয়েক আগে খবর বের হয়েছে যে, জামায়াত আর বিএনপির সঙ্গে সম্পর্ক রাখবে না। ২০ দলীয় জোটেও তারা সক্রিয় থাকবে না। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও জামায়াত বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ভোট করেছে। ভোটে ভরাডুবির পর তাদের উপলব্ধি হয়েছে যে, ‘ওই জোট এখন প্রাসঙ্গিক নয়’। জামায়াত মনে করছে, ‘বিএনপি যেহেতু আরেকটা ফ্রন্টে এখন সক্রিয়, সেদিক থেকে ২০ দলীয় জোটকে অনেকটাই অকার্যকর দেখছে। এ রকম একটা অকার্যকর জোটে থাকা না থাকার ব্যাপারে আগ্রহ নেই জামায়াতের।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে অধ্যাপক এ আরাফাত বলেন, বিএনপি জামায়াতকে ছেড়ে দিলে, এটি হবে তাদের জন্য তীক্ষ্ণ বুদ্ধি সম্পন্ন পদক্ষেপ। কারণ জামায়াতে ইসলামী নামের রাজনৈতিক দলটি নিয়ে বাংলাদেশের রাজনীতিতে আলোচনা হওয়ার কথা ছিল না। বাংলাদেশে জামায়াতের রাজনীতিও করার কথা নয়। এই দলটি বাংলাদেশ চায়নি। তারা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। অস্ত্র হাতে পাকিস্তানি বাহিনীর পক্ষে বাঙালির বিপক্ষে দাঁড়িয়েছে। এরা ঘাতক, এরা দালাল। পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণের পর এরাও গর্তে লুকিয়েছিল। ছিল সময়ের, সুযোগের অপেক্ষায়। একদিন তারা সুযোগ বুঝে খালেদা জিয়াকেও গদি থেকে সরিয়ে দিতে পারে। অতএব বিএনপি যদি জামায়াত ছেড়ে দেয়, নিশ্চয় দেশের মানুষ তাদের সাদরে গ্রহণ করবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি