মঙ্গলবার ২৭ জুলাই ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » স্পন্সরড অ্যাড দিয়ে সরকার বিরোধী প্রচারণা চালায় তাসনিম খলিল!



স্পন্সরড অ্যাড দিয়ে সরকার বিরোধী প্রচারণা চালায় তাসনিম খলিল!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
16.07.2021

নিউজ ডেস্ক: শুরু হয়েছে হলুদ সাংবাদিক তাসনিম খলিলের নব্য নাটক। সাধারণ মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতে আর সাধারণ মানুষের সহানুভূতি পেতে তাসনিম খলিল স্পন্সরড অ্যাডের জন্য টাকা নেই বলে প্রচারণা চালাচ্ছেন। মূলত, স্পন্সরড অ্যাড দিয়ে সরকার বিরোধী প্রচারণা চালান তাসনিম খলিল তা এক প্রকার স্বীকার করে নিয়েছে তিনি।

এ প্রসঙ্গে একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, প্রতিদিন তাসনিম খলিল আর বার্গম্যানকে মানুষ দেখতে বাধ্য হয় স্পন্সরড অ্যাডের জন্য। এখন তাসনিম খলিল বলছেন তাদের নাকি টাকা নেই। তার পোস্টগুলো ভালো ভাবেই খেয়াল করলেই প্রমাণ হয়ে যায় কাদের টাকা আছে আর কাদের টাকা নেই।

হলুদ সাংবাদিক তাসনিম খলিল তার এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‌‘একটা সময় চোরের মায়ের বড় গলা ছিলো। আর এখন চোর চুরি করে ধরা খাইলে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ফেসবুকে স্পনসরড পোস্ট দেয়। আমাদের অবশ্য ওতো টাকা নাই যে এইভাবে প্রচার করতে পারবো, আপনারা নিজ দায়িত্বে চোরদের খবর জানতে নেত্র নিউজের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।’

এই গুজববাজ সাংবাদিকের স্ট্যাটাসে শোয়াইব আব্দুল্লাহ (Shoeb Abdullah) নামের এক ব্যক্তি ক্ষোভ প্রকাশ করে মন্তব্য করেন, ‘‘না চাইতেও প্রতিদিন আটদশবার করে আপনাকে আর বার্গম্যানকে দেখতে হয় স্পন্সরড এ্যাডের জন্য৷ দেখতে দেখতে এখন একটা মায়া জন্মায় গেছে আপনাদের উপরে৷ কোনোদিন এ্যাড না আসলে খুজে খুজে দেখে আসি বিভিন্ন বট পেজ থেকে৷’’

সূত্র বলছে, মূলত যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক একটি এনজিও CRI (Centre for Research and Information) এর টাকায় বাংলাদেশ বিরোধী সকল প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছে তাসনিম খলিলের ‘নেত্র নিউজ’ নামক অনলাইন পোর্টালটি। বর্তমানে করোনাকালীন সময়ে CRI ‘নেত্র নিউজ’কে টাকা দেয়ার পরিমাণ কমিয়ে দিয়েছে বলেই তাসনিম খলিল ফেসবুকের মাধ্যমে সাধারণ জনগণের পকেট কাটার চিন্তা করছে বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে।

প্রসঙ্গত, দেশের বাহিরে বসে বাংলাদেশকে সারাবিশ্বের কাছে ছোট করাই হলো তাসনিম খলিলের মূল উদ্দেশ্য। এছাড়াও সরকারের বিরুদ্ধে এবং রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে নানান ধরনের গুজব ছড়িয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির প্রয়াস চালানো হয় তাসনিম খলিল সম্পাদিত ‘নেত্র নিউজ’ এই অনলাইন পোর্টালটির মাধ্যমে। এই গুজব রটনাকারী সাংবাদিক থেকে দূরে থাকারই পরামর্শ দিচ্ছেন সচেতন মহল।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি