মঙ্গলবার ২৭ জুলাই ২০২১
  • প্রচ্ছদ » other important » তারেক কমিশন চাওয়ায় বন্ধ হতে যাচ্ছে বিএনপির করোনা হেল্প সেন্টার



তারেক কমিশন চাওয়ায় বন্ধ হতে যাচ্ছে বিএনপির করোনা হেল্প সেন্টার


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
18.07.2021

নিউজ ডেস্ক: করোনা সংক্রমণের মধ্যে মানুষকে স্বাস্থ্যসেবা দিতে দলের ৪৫টি জেলা কার্যালয়ে ‘করোনা হেল্প সেন্টার’ খুলেছে বিএনপি। ঈদুল আযহার আগে বাকি জেলাগুলোতেও এই সেন্টার খোলার ইচ্ছা থাকলেও সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন- নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির করোনাভাইরাস সংক্রমণ পর্যবেক্ষণ কমিটির একজন সদস্য।

কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, দলের পক্ষ থেকে এমন কার্যক্রম গ্রহণ করায় অনেক চাঁদা বা ফান্ড আসছে। আর দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লন্ডনে বসে সেই টাকার মোটা অংকের কমিশন চাওয়ায় দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়েছে দলের সিনিয়র নেতাদের মধ্যে।

তিনি জানান, এদিকে বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় জেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে রাগ-ক্ষোভ বিরাজ করছে। এতে ব্যত্যয় হচ্ছে এই কার্যক্রমের গতি। আগ্রহ হারিয়েছেন নেতাকর্মীরা।

ফরিদপুর জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক বাংলা নিউজ ব্যাংকে বলেন, দলের টাকার ভাগ লন্ডনে পাঠাতে হয় জানি। কিন্তু এমন একটা মানবিক কাজ থেকেও যদি কমিশন দিতে হয় তাহলে তা অমানবিক। এই মহামারির মধ্যে নেতাকর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানুষের জন্য কাজ করা শুরু করেছে মাত্র। সামনে ঈদ সবারই আশা থাকে, দল থেকে, সিনিয়র নেতাদের কাছ থেকে ঈদ বকশিস বা সালামি হিসেবে বাড়তি কিছু টাকা। কিন্তু বাস্তবতা সম্পূর্ণ তার উল্টো।

তিনি আরও বলেন, লন্ডনে তো আর ছোট এমাউন্ট পাঠানো হয় না। যে পরিমাণ পাঠানো হবে এতে করে মাঠপর্যায়ের নেতাকর্মীরা বঞ্চিত হবে ঈদ সালামি থেকে। ইতোমধ্যেই জেলা পর্যায়ের অনেক নেতারাকর্মীরা এই হেল্প সেন্টার তথা তাদের দলীয় কার্যালয়ে যাচ্ছে না এই খবর শুনে। তারা ভাবছে- তাদের ভাগটাও লন্ডনে চলে যাবে। বৃথা শ্রম দিয়ে লাভ নেই।

জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন ও ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) সহযোগিতায় খোলা এই হেল্প সেন্টার থেকে জনসাধারণকে জরুরি অ্যাম্বুলেন্স সেবা, বাসায় অক্সিজেন সিলিন্ডার পৌঁছানো ছাড়াও অ্যাপসের মাধ্যমে চিকিৎসার পরামর্শ ও ওষুধ সরবরাহ করার উদ্দেশ্য নিয়ে এ কার্যক্রম শুরু হয় ১৬ জুলাই শুক্রবার। দুইদিন যেতে না যেতেই এই কার্যক্রম বন্ধ হবার উপক্রম হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও দলটির করোনাভাইরাস সংক্রমণ পর্যবেক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক ইকবাল হাসান মাহমুদের সাথে মুঠোফোনে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। ফোনে চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স কেও।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি