মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » পদ-কমিটি না পাওয়ার ক্ষোভ: পীরগঞ্জে দেদারছে বিয়ে করছে ছাত্রদল-যুবদলের নেতাকর্মীরা



পদ-কমিটি না পাওয়ার ক্ষোভ: পীরগঞ্জে দেদারছে বিয়ে করছে ছাত্রদল-যুবদলের নেতাকর্মীরা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
27.07.2021

নিউজ ডেস্ক: মহামারির মধ্যে সামাজিক অনুষ্ঠানে বন্ধের নির্দেশনা থাকলেও ত্বর সইছে না পীরগঞ্জের ছাত্রদল-যুবদলের নেতাকর্মীদের। দীর্ঘদিন ধরে বিয়ে না করে পদ-পদবীর আশায় কমিটি হবার অপেক্ষায় ধৈর্য্যধারণ করে ছিলেন রংপুরের বিভিন্ন জেলা-উপজেলার বিভিন্ন অংসংগঠনের নেতাকর্মীরা। বিশেষ করে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

কিন্তু দলীয় কোন্দল, কমিটি নিয়ে শীর্ষ নেতাদের অনীহা সবমিলিয়ে ধৈর্য্যহারা হয়ে বিয়ের প্রতিযোগিতায় নেমেছে উত্তরবঙ্গের ছাত্রদল-যুবদলের নেতাকর্মীরা। রীতিমতো বিয়ের হিড়িক উপজেলাটিতে।

সদ্য বিবাহিত পীরগঞ্জের ছাত্রদলের এক নেতা নাম প্রকাশ করার শর্তে বলেন, পীরগঞ্জ ছাত্রদলের কমিটি দেবার কথা আরও চার বছর আগে কিন্তু কোনো খবর নেই। এরকম শুধু পীরগঞ্জে না পুরো উত্তরবঙ্গজুড়ে। পদের আশায় আর কতে অপেক্ষা করবো? এদিকে বয়স বাড়ছে। সাথের বন্ধুরা বাপ হয়ে গেছে। তাই রাজনীতির আশা ছেড়ে দিয়ে নতুন জীবন শুরু করছি।

সদ্য বিবাহিত যুবদল নেতা রাসেল মাহমুদ বলেন, বিয়েটা আমার ব্যক্তিগত বিষয়। তবে এতোদিন রাজনীতির জন্যই বিয়ে করিনি। দলের যে অবস্থা কমিটির আশায় থাকলে বুড়াকালে দেখার কেউ থাকবে না।

বিএনপির নেতাকর্মী ছাড়া সাধারণ মানুষও বিয়ে করছে। ঈদের ছুটিতে প্রায় পাঁচ শতাধিক বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলার রেজিস্ট্রি অফিসে বিবাহের নথি ও পরিচয় বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ৩২১ জন ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মী দেদারছে বিয়ে করেছেন উপজেলাটিতে।

উপজেলা নিকাহ রেজিস্ট্রার ও হিন্দু বিয়ে রেজিস্ট্রারের সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় রয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তার রোধে চলমান কঠোর বিধিনিষেধ ঈদ উপলক্ষে সপ্তাহখানেক শিথিল করে সরকার। আর এই সুযোগে মানুষ তড়িঘড়ি করে বিয়ের আয়োজন করতে শুরু করে। ঈদের ছুটিতে প্রায় পাঁচ শতাধিক বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। এদের মধ্যে বেশিরভাই ছাত্রদল আর যুবদলের নেতাকর্মী।

এদিকে পীরগঞ্জ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জিয়াউল ইসলাম বলেন, উত্তরবঙ্গের বগুড়া জেলায় বিএনপির প্রতিষ্টাতা সেনাশাসক জিয়াউর রহমানের পৈত্রিক নিবাস হওয়ায় এ অঞ্চলে আমাদের সমর্থক এবং নেতাকর্মী তুলনামূলক অনন্যা জেলা থেকে বেশি। তবে দীর্ঘদিন ধরে কমিটি না দিলে। তৃণমূল না গোছালে পরিস্থিতি এমনই হবে। কেই বিয়েশাদি করে সংসার নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পরবে কেউ আবার সুবিধা বুঝে ক্ষমতাশীনদের সঙ্গে হাত মেলাবে।

বিএনপি ছেড়ে কেউ কি আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, অভাব নাই। খোজ করলেই বাইর হবে কতজন আছে এমন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি