মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১



পুলিশ দেখেই পুকুরে ঝাঁপ জামায়াত নেতার!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
03.08.2021

নিউজ ডেস্ক: ময়মনসিংহের নান্দাইলের হরিপুর আলাবক্সপুরে কনস্টেবলকে সঙ্গে নিয়ে সোমবার (২ আগস্ট) দুপুরে একটি মামলার তদন্তে যান এসআই সাইফুল ইসলাম। মোটরসাইকেলে করে ওই গ্রামে ঢোকার পরই পুলিশ দেখে দৌঁড়ে পাশের পুকুরে ঝাঁপ দেন জামায়াত নেতা জসিম উদ্দিন (৪২)।

সন্দেহ হওয়ায় পুলিশ সেখানে থামে। তাকে পুকুরে ঝাঁপ দেয়ার কারণ জানতে চান এসআই সাইফুল। তবে তিনি কোনো কথা না বলে পুকুরের পানিতে গলা পর্যন্ত ডুবিয়ে অবস্থান করেন। আধাঘণ্টা পর পানিতে নেমে জামায়াত নেতা জসিমকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

থানায় নেয়ার পর ওই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ ও খোঁজ-খবর নিয়ে জানা যায়, তিনি অস্ত্র মামলায় ১০ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। এছাড়া ঢাকার দক্ষিণখান থানার ২০১৪ সালের আরেকটি মামলায় তিনি পরোয়ানাভুক্ত আসামি। পরে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করে।

গ্রেফতার হওয়া জসিম উদ্দিন উপজেলার সিংরইল ইউনিয়নের হরিপুর আলাবক্সপুর গ্রামের মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে।

নান্দাইল থানার এসআই সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘দুপুরের দিকে অন্য একটি ঘটনা তদন্তে হরিপুর আলাবক্সপুর গ্রামে মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলাম। পথে জসিম আমাদের দেখে পুকুরে ঝাঁপ দেয়। সন্দেহ হওয়ায় তাকে পানিতে নেমে আটক করে থানায় আনা হয়। পরে জানতে পারি তিনি অস্ত্র মামলায় ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত। দীর্ঘদিন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।’

থানা সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালের ২৫ জানুয়ারি অবৈধ অস্ত্র মামলায় আদালত গ্রেফতার জামায়াত নেতা জসিম উদ্দিনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন। এরপর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। এছাড়াও ঢাকার দক্ষিণখান থানার ২০১৪ সালের আরেকটি মামলায় তিনি পরোয়ানাভুক্ত আসামি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি