মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১



বিএনপির বিরুদ্ধে দলের আইনজীবীদের ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছেন তারেক


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
03.08.2021

নিউজ ডেস্ক : বিএনপির দুর্নীতিগ্রস্থ চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে তিন বছরেও অবমুক্ত করতে ব্যর্থ হওয়ায় দলীয় আইনজীবীদের সক্ষমতা যাচাই করতে বিএনপির সিনিয়র এক নেতাকে দায়িত্ব দিয়েছেন তারেক রহমান। দলীয় আইনজীবীদের স্বদিচ্ছা ও নিবেদনের তথ্য যাচাই করে সেই দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা চলতি সপ্তাহে তারেক রহমানকে রিপোর্ট দিবেন বলে জানা গেছে।

অনুসন্ধানে যদি বেগম জিয়ার মুক্তিতে দলীয় আইনজীবীদের কোন রকম অনিচ্ছা, আঁতাত বা ষড়যন্ত্রের তথ্য পাওয়া যায় তবে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থাসহ আনুষঙ্গিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। তারেক রহমানের এমন গোপন তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়ে আঁচ পেয়ে আতঙ্কে দিন পার করছেন দলটির নেতৃবৃন্দ। লন্ডন বিএনপির একজন নেতার মারফত এমন তথ্যের বিষয়ে জানা গেছে।

বেগম জিয়ার মুক্তি আদায়ে ব্যর্থতার জন্য দলীয় আইনজীবীদের অযোগ্যতা ও অক্ষমতার বিষয়ে চলমান গোপন তদন্তের বিষয়ে যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহীন বলেন, তিন বছরের অধিককাল ধরে ম্যাডাম জিয়া অবরুদ্ধ। একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী সাধারণ দুর্নীতি মামলায় জেল খাটছেন, অথচ দলীয় আইনজীবীরা জামিন আদায় করতে পারছেন না। আইনজীবীরা আদালতকে কনভিন্স করতে ব্যর্থ হয়েছেন। তবে বেগম জিয়ার মুক্তিতে কয়েকজন আইনজীবীর অনীহা ও স্বদিচ্ছার অভাবের বিষয়ে কিছু গুঞ্জন তারেক রহমানের কানেও গিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, দলীয় আইনজীবীদের ব্যর্থতার কারণে বেগম জিয়ার কারাবাস দীর্ঘায়িত হচ্ছে, এমনটাই বিশ্বাস করেন তারেক রহমান। তাই এই মামলায় বিএনপির আইনজীবীদের অক্ষমতা, সম্ভাব্য আঁতাত ও ষড়যন্ত্রের বিষয়ে খোঁজ-খবর রাখতে দেশের একজন সিনিয়র আইনজীবী ও সাবেক মন্ত্রীকে দায়িত্ব দিয়েছেন তারেক রহমান। বলা যায়, এক সদস্য বিশিষ্ট কমিটি। দায়িত্বপ্রাপ্ত এই নেতা চলতি সপ্তাহে বিচার-বিশ্লেষণ ও অনুসন্ধান চালিয়ে লন্ডনে রিপোর্ট পাঠাবেন। এই রিপোর্টে যদি বেগম জিয়ার মামলায় কোন দলীয় আইনজীবীর গাফলতি বা হেয়ালিপনার তথ্য পাওয়া যায়। তবে দায়ী ব্যক্তির বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে দায়িত্বপ্রাপ্ত সেই নেতার নাম গোপন রাখা হচ্ছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি