মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১



পরীমনির দেহের সাইজ ঠিক করে দেন তারেক রহমান


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
05.08.2021

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের সুপরিচিত অভিনেত্রী পরীমনির ঢাকার বাসায় র‍্যাবের একটি দল প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা অভিযানের পর রাত সোয়া আটটার দিকে তাকে তার বাসা থেকে বের করে মাইক্রোবাসে করে র‍্যাব হেফাজতে নেয়া হয়েছে। একই সাথে পরীমনির ব্যক্তিগত গাড়িচালক ও বাসার একজন কর্মীকে র‍্যাব তাদের হেফাজতে নিয়েছে।

একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র বরাত জানা যায়, খুশি করার কারণে ২৩ লাখ টাকা খরচ করে পরীমনির ব্রেস্ট বড় করে দিয়েছিলেন তারেক রহমান। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান নাকি দেশে থাকা অবস্থায় বাংলাদেশের বিনোদন জগতের নারীদের ব্যাপকভাবে হেনস্তা করতেন।

তার ভয়ে বাংলাদেশের নায়িকা রোমানা বাংলাদেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে বসবাস শুরু করেন। এরপর বাংলাদেশের নাট্য জগতের এক সময়কার ব্যস্ততম নায়িকা ইপসিতা শবনম শ্রাবন্তী বর্তমানে তারেকের ভয়ে যুক্তরাষ্ট্রে থাকছেন।

এ বিষয়ে পরীমনির সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, খবরটা ২০০৬ সালের। আমার বয়স তখন ১৬। এই তারেক রহমান আমার অনেক ক্ষতি করেছে। ২০০৪ সালে মাত্র ১৪ বছর বয়সে মডেল হতে ঢাকায় আসার পর তারেক রহমানের নজরে আমি পড়ি। পরে টানা দুই বছর তার সঙ্গে থাকার পর, দুর্নীতির দায়ে তিনি মুসলেকা দিয়ে লন্ডন চলে জান। অতঃপর আমিও গ্রামের বাড়ি পিরোজপুর চলে যাই। ফের ২০১১ সালে লন্ডন থেকে তারেক রহমান আমাকে ফোন করে লন্ডন আসতে বলেন। সে সময় তার কর্মীর মাধ্যমে তিনি আমার লন্ডন যাবার সব ব্যবস্থা নিশ্চিত করেন। এরপর লন্ডন গিয়ে তিনি দেখেন আমার দেহের শেপ নষ্ট হয়ে গিয়েছে। পরে ২৩ লাখ টাকা খরচ করে তিনি আমার দেহ প্লাস্টিক সার্জারি করে পুনরায় ঠিক করে দেন। এরপর টানা ১ বছর আমি তারেক রহমানের সঙ্গে লন্ডনে অবস্থান করি। পরে অশ্লীল যুগের নায়িকা, বর্তমান বিএনপি নেত্রী শায়লার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিলে শায়লা আমাকে বি গ্রেড ছবিতে কাজ করার সুযোগ করে দেন। এরপর সেই ছবিতে কাজ করে দেশের একাধিক চলচ্চিত্র নির্মাদের নজরে আসলে টাকা পয়সার মালিক হতে আমার খুব একটা কষ্ট হয়নি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি