বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » other important » ক্ষমতায় থাকাকালীন করা পাপের প্রায়শ্চিত্ত করছে বিএনপি



ক্ষমতায় থাকাকালীন করা পাপের প্রায়শ্চিত্ত করছে বিএনপি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
17.08.2021

নিউজ ডেস্ক : বিএনপি সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে যেসব বিষ ছড়িয়েছিলো, বর্তমান সরকারের সময়ে এসে সকল অপকর্মের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতির কারণে দেশে শান্তিশৃঙ্খলা ফিরে এসেছে। তবে এ সময় আইনশৃঙ্খলাবাহিনী অপকর্মকারীদের মূলহোতাদের তথ্য বের করতে গিয়ে জানতে পারে অধিকাংশ অপরাধীই বিএনপি নামক রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত।

এমন প্রেক্ষাপটে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, দেশে চলমান দুর্নীতি ও মাদকবিরোধী অভিযানে বিএনপি নেতাদের নাম এসেছে। বিষয়টি দুঃখজনক। আমার মনে হয় মিডিয়াগুলো তারেক রহমানসহ বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দের নামে আষাঢ়ে গল্প প্রচার করছে। রিজভী প্রশ্ন তুলে বলেছেন, বিএনপি তো ১৪ বছর ক্ষমতায় নেই। তাহলে কীভাবে দুর্নীতি ও মাদকপাচার করলো?

সোমবার (১৬ই আগস্ট) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন রিজভী।

এমন প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বিএনপির যেসব নেতাদের বিরুদ্ধে অনৈতিক ব্যবসার অভিযোগ উঠেছে তাদের বাঁচাতে তৎপর হয়ে নেতারা যেসব বক্তব্য দিচ্ছেন, তা দেখে মনে হচ্ছে দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থেকে তাদের উপকারই হয়েছে।

এ বিষয়ে একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক বলেন, সমাজে যে বিষ একবার ছড়িয়ে পড়ে তা দুই চার যুগেও শেষ হয় না। বিএনপি সরকারের আমলে যে বিষ ঢুকেছে তা হুট করে শেষ হয়ে যাবে সেভাবে ভাবার কোনো অবকাশ নেই। কিন্তু এ বিষয়ে বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী যে দাবি করেছেন তা মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। ১৪ বছর ক্ষমতায় না থাকলেই তো আর প্রমাণিত সত্য উপেক্ষা করা যায় না।

প্রসঙ্গত, একের পর এক দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে তারেক রহমান, বিএনপি নেতা মির্জা আব্বাস, আব্দুল আউয়াল মিন্টুর নাম উঠে এসেছে। এ নিয়ে বিএনপি নেতারা বেশ বিব্রত হয়ে পড়লেও তা থেকে উত্তরণের নানা বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু সে প্রচেষ্টা বারবার ব্যর্থ হচ্ছে। কেননা, দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে যেভাবে নেতাদের সম্পৃক্ততার খবর প্রকাশ পাচ্ছে তা ছাপিয়ে দাঁড়াতে পারছে না বিএনপি নেতারা। কিন্তু চেষ্টার কোনো ত্রুটিই রাখছে না নেতারা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি