বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনে অর্থসংকটে বিএনপি!



প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনে অর্থসংকটে বিএনপি!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
24.08.2021

ডেস্ক রিপোর্ট: আর কয় দিন পরেই বিএনপির ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এই উপলক্ষে একদিনের কর্মসূচিও ঘোষণা করেছে বিএনপি। কিন্তু ঘোষিত সেই কর্মসূচি খুবই সংক্ষিপ্ত হওয়ায় দলের মধ্যেই শুরু হয়েছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির কয়েকজন নেতা জানান, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী যে কোন রাজনৈতিক দলের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বড় আকারে পালন করা উচিত। কিন্তু এবার যে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে তা বিএনপির মত বড় দলের সাথে যায় না। কোন সমাবেশ নেই। বিষয়টি নিয়ে কর্মীদের মন খারাপ। কিন্তু কী কারণে সংক্ষিপ্ত আকারে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি জানতে চাইলে তারা বলেন, দলের আর্থিক অবস্থা খারাপের কারণে এ সিদ্ধান্ত।

জানা গেছে, বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স মঙ্গলবার দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি ঘোষণা করেন। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিন ১ সেপ্টেম্বর সকাল ৬টায় নয়া পল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারাদেশে দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ১১টায় শেরে বাংলা নগরে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন, হেল্প ক্যাপ ও কোভিড রোগীদের প্রদান ও আলোচনা সভা।

কর্মসূচি ঘোষণার পর বিএনপির কয়েকজন নেতার সাথে কথা হয় বাংলা নিউজ ব্যাংকের। ওই নেতারা জানান, করোনার কারণে বড় করে না হলেও কমপক্ষে একটি সমাবেশের আয়োজন করা উচিত ছিল। কিন্তু দলের আর্থিক অবস্থা খারাপ থাকার অজুহাতে এবার সমাবেশ করা হচ্ছে না। এতে কর্মীরা হতাশ। ওই নেতারা আক্ষেপ করে বলেন, অপ্রয়োজনে কত টাকা খরচ করা হয়, অথচ দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে টাকার অভাবে একটা সমাবেশ করা যাচ্ছে না।

সূত্র জানায়, সমাবেশ করতে হলে অনেক টাকা খরচ করে কর্মী আনতে হয়। কিন্তু বিএনপির বড় কয়েকজন অর্থদাতা নানা কারণে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ওপর ক্ষুব্ধ। দলের অর্থদাতাদের মধ্যে মির্জা আব্বাস অন্যতম। তিনি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য। সব সময় বড় অঙ্কের টাকা দিলেও এবার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে তিনি কোন টাকা দেননি। কারণ এর আগেই নানা অজুহাতে তারেক রহমান তার কাছে কোটি কোটি টাকা নিয়ে আমোদ ফুর্তি করেছেন। ফলে এবার টাকার কথা বলতেই তারেক রহমানের ফোন কেটে দিয়েছেন তিনি। এছাড়া আবদুল আউয়াল মিন্টু বিএনপির আরেক বড় অর্থদাতা। দেশের অন্যতম বড় এই ব্যবসায়ী বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান। তিনিও কোন টাকা দেননি। জানা গেছে, কয়েকদিন আগে ঘোষিত বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তরের কমিটিতে তার ছেলে তাবিথ আউয়ালকে বড় পদ না দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন তিনি। মূলত এই দুই বড় অর্থদাতা টাকা না দেওয়ায় তারেক রহমানের নির্দেশে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি সংক্ষিপ্ত করেছে বিএনপি।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সংগঠন চালাতে দক্ষ লোক লাগে। ম্যাডাম দলের দায়িত্বে থাকলে এই সমস্যা হত না। অপ্রয়োজনীয় খাতে বেশি টাকা খরচ করে এখন প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচির জন্য টাকা পাওয়া যাচ্ছে না। বিষয়টি খুবই হতাশার।

 

 

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি