মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে তারেকের চাঁদা দাবি, আতঙ্কে দলীয় ব্যবসায়ীরা



দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে তারেকের চাঁদা দাবি, আতঙ্কে দলীয় ব্যবসায়ীরা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
25.08.2021

নিউজ ডেস্ক: আগামী ১ সেপ্টেম্বর বিএনপির ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এ উপলক্ষে দলের পক্ষ থেকে নানা রকম কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। নেতাকর্মীরাও তা পালনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এমতাবস্থায় লন্ডনে পলাতক ফেরারি আসামি তারেক রহমানের ফোনের ভয়ে আতঙ্কে দিন পার করছেন দলীয় ব্যবসায়ীরা। ইতোমধ্যে কয়েক দফায় তিনি ফোন করে চাঁদার তাগাদা দিয়েছেন বলেও জানা গেছে।

বিশ্বস্ত সূত্রের তথ্যমতে, ২৪ আগস্ট (মঙ্গলবার) দুপুরে বিএনপির নয়াপল্টন কার্যালয়ে দলটির দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ চৌধুরী প্রিন্স প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি ঘোষণা করলেও তার অন্তত এক সপ্তাহ আগে থেকে তারেক রহমান বিএনপির ব্যবসায়ীদের কাছে চাঁদা দাবি করে আসছেন। এ কারণে মির্জা আব্বাস ও আবদুল আউয়াল মিন্টুর মতো লোকও তার ফোন ধরছেন না।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী নেতাকর্মীদের কাছে সব সময় আনন্দের হলেও উৎসবের হলেও আমাদের কাছে তা রীতিমত অভিশাপে পরিণত হয়েছে। বিগত কয়েক বছর ধরে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের নামে তারেক রহমান যে সীমাহীন চাঁদাবাজি ও অনুদান আদায়ের নামে যে নোংরা খেলা খেলছেন, আমরা তা থেকে মুক্তি চাই। এভাবে আর নাজেহাল হয়ে পারছি না, বড্ড ক্লান্ত লাগছে।

একই সুরে কথা বললেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও খালেদাপন্থী এক নেতা। তিনি বলেন, ঈদ, পহেলা বৈশাখ কিংবা দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, যা-ই হোক না কেন, তারেকের চাঁদা চাই-ই চাই। ব্যত্যয় হয়নি এবারের আসন্ন প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষেও। তিনি দলীয় ব্যবসায়ী নেতাদের লম্বা একটা তালিকা বানিয়ে তাদেরকে ধরে ধরে ফোন দিয়ে দাবি করছেন মোটা অংকের চাঁদা। এ কারণে অধিকাংশরাই তার ফোন নম্বর ব্লাক লিস্টে দিয়ে রেখেছেন। আবার কেউবা তার ফোনই ধরছেন না। এই যন্ত্রণার শেষ কবে, তা নিজেও জানিনা আমরা।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, চলমান করোনা পরিস্থিতির মধ্যে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের নামে তারেক দলীয় ব্যবসায়ীদের জন্য যে মোটা অংকের চাঁদা নির্ধারণ করেছেন, তা সত্যিই অমানবিক। তার এমন স্বৈরাচারী আচরণের কারণেই অনেক নেতাকর্মী দল ছাড়ছেন, মনোযোগ দিচ্ছেন ব্যবসা-বাণিজ্যে। অথচ তাতে যেন ‘থোড়াই কেয়ার’ করছে না তারেক। তিনি কানে হেডফোন দিয়ে দিব্যি শুনছেন পাকিস্তানি গান।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি