বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » পরীমনির মত খালেদা জিয়ারও সুন্দরী কোটায় মুক্তি দাবি!



পরীমনির মত খালেদা জিয়ারও সুন্দরী কোটায় মুক্তি দাবি!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
04.09.2021

ডেস্ক রিপোর্ট: মাদক মামলা থেকে সম্প্রতি জামিন পেয়েছেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। বিষয়টি নিয়ে সারাদেশে নানা আলোচনা চলছে। পক্ষে-বিপক্ষে নানাজন নানা কথা বলছেন। তবে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিষয়টিকে অন্যভাবে দেখছেন। পরীমনি একজন সুন্দরী নায়িকা, তাই দ্রুত তার মুক্তি হয়েছে উল্লেখ করে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াও বাংলাদেশের অন্যতম একজন সুন্দরী নারী। পরীমনির মত সুন্দরী কোটায় খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি জানিয়ে হাইকোর্টের হস্তক্ষেপও কামনা করেছেন তিনি।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুরুল হক মিলনায়তনে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান কাজী জাফর আহমদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় পার্টির (জাফর) এক স্মরণসভায় ডা. জাফরুল্লাহ এসব কথা বলেন। তিনি আদালতের উদ্দেশে বলেন, পরীমনিকে সুন্দরী কোটায় জামিন দিয়েছেন, খালেদা জিয়াকেও একই যোগ্যতার কারণে মুক্তি দিন।

জানা গেছে, কিছুদিন আগে ডা জাফরুল্লাহ চৌধুরী রাজধানীর শাহবাগে এক সমাবেশ থেকে পরীমনির মুক্তি চেয়েছিলেন। তখন তিনি বলেন পরীমনি সুন্দরী নায়িকা, তাকে মুক্তি দেয়া উচিত। এর দুই তিনি দিন পরেই মাদক মামলা থেকে মুক্তি পেয়ে কারাগারের বাইরে আসেন পরীমনি। এরপর খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়েও আশাবাদী হয়ে উঠেছেন ডা. জাফরুল্লাহ। কেননা পরীমনি যেমন সুন্দরী, রূপ- যৌবন দিয়ে অসংখ্য যুবকের হৃদয়ে ঝড় তুলেছেন; খালেদা জিয়াও একসময় তার রূপ-যৌবন দিয়ে একসাথে অনেক পুরুষের হৃদয়ে ঝড় তুলেছিলেন। এখন তার যৌবন নেই, কিন্তু সৌন্দর্য একেবারে কমে নাই। এছাড়াও পরীমনির সাথে খালেদার আরেকটা বড় মিল, দুইজনই বিদেশী মদের কড়া ভক্ত। এসব মিলের কারণেও খালেদার জামিন পাওয়া উচিত বলে মনে করে ডা. জাফরুল্লাহ। তাই তিনি হাইকোর্টের পরীমনির মত খালেদা জিয়ার জামিনের ব্যাপারে হাইকোর্টের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

জানতে চাইলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ম্যাডামের মুক্তির জন্য পরীমনির তুলনা দিতে হবে কেন? কোথাকার কোন পরীমনির সাথে ম্যাডামের তুলনা চলে? ডা. জাফরুল্লাহর ওপর একটু বিরক্ত হয়ে তিনি বলেন, বিএনপির মঙ্গল কামনা করেন সেটা ভালো কথা। ম্যাডামের মুক্তি চান সেটাও ভালো কথা। কিন্তু ম্যাডামের সাথে একজন নায়িকাকে কেন তুলন করতে হবে! মির্জা ফখরুল মনে করেন বয়সের কারণে ডা. জাফরুল্লাহ অনেক সময় সঠিক যুক্তি দিতে পারেন না, তাই তার দাবি ন্যায্য হলেও পরীমনির মত তৃতীয় শ্রেণীর মেয়ের সাথে খালেদার তুলনা ঠিক হয়নি।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা ডা. জাফরুল্লাহর এই দাবিকে শিশুতোষ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তারা বলেন, মাদক মামলায় পরীমনিকে আটক করা হয়েছিল। এখনও রায় হয়নি, তাই অন্তবর্তী জামিন পেয়েছেন। অপরাধ প্রমাণিত হলে সাজা পাবেন পরীমনি। কিন্তু খালেদা জিয়া দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত আসামি। তার কিভাবে মুক্তি চান তিনি? আবার সুন্দরী হওয়ার কারণে কাউকে মুক্তি দিতে হবে এটা বাচ্চাদের মত আবদার।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি