মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে প্রস্তুত খালেদা, জানেন না দলের নেতারা



রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে প্রস্তুত খালেদা, জানেন না দলের নেতারা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
07.09.2021

নিউজ ডেস্ক: রাজনীতি থেকে বিচ্ছিন্ন সাবেক বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। আইনিভাবে ব্যর্থ হয়ে সরকারের বিশেষ বিবেচনায় জামিনে রয়েছেন গত বছরের ২৫ মার্চ থেকে। জামিনও শেষের পথে। এর মধ্যে চিকিৎসার কথা বলে বিদেশে যাবার আবেদন করে ব্যর্থ হয়েছিল খালেদার পরিবার। তবে এবার খালেদা জিয়া দেশত্যাগের জন্য সর্ব্বোচ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

খালেদা পরিবারের বিশ্বস্ত একটি সূত্র বাংলা নিউজ ব্যাংককে জানান, বেগম জিয়ার মুক্তি চেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছেন তার ভাই শামীম এস্কান্দার। তবে এই আবেদনে খালেদা জিয়ার দণ্ড মওকফের আবেদন করা হয়েছে কিনা সেটি এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে সূত্রটি জানিয়েছে, প্রয়োজনে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে প্রস্তুত খালেদা জিয়া।

আইনানুযায়ী ফৌজদারি কার্যবিধির ৪২১ ধারায় স্থায়ী মুক্তির কোন বিধান নেই। যদি খালেদা জিয়ার মুক্তি আবেদন তিনি করে থাকেন তাহলে সেটি করতে হবে রাষ্ট্রপতির কাছে, তবে সেটি রাষ্ট্রপতির কাছে যাবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে। সেখানে তার দোষ স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে।

সূত্র বলছে, সরকারের সাথে সমঝোতা করছেন খালেদা জিয়ার পরিবার। যেতে চাচ্ছেন লন্ডনে। বেগম জিয়া নিজেই দেশ ছাড়ার ইচ্ছের কথা জানিয়েছেন পরিবারকে। শিগগিরই প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পূর্ব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। তবে এবার বিষয়টি অত্যন্ত গোপনীয়তার সাথে করেছে জিয়া পরিবার। পূর্বের ন্যায় ভুল করতে চাইছে না তারা। তাই এ বিষয়ে বিএনপির হাইকমান্ড অন্ধকারে রয়েছে। খালেদা জিয়ার পরামর্শে পরিবারই সবকিছু করছে।

এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে করা পরিবারের আবেদনে মতামত দিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়। এ মতামত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মতামত পাঠিয়েছি।’ তবে মতামতে কী উল্লেখ আছে তা বলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বর্তমানে জার্মানিতে রয়েছেন। ১০ সেপ্টেম্বর তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে। মন্ত্রী দেশে আসার পর আইন মন্ত্রণালয়ের মতামতের ভিত্তিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নেবে।

এ প্রসঙ্গে ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট ডিকসন বলেছিলেন, সরকার অনুমতি দিলে খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য তারা ব্রিটেন যেতে ভিসা দেবেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আইনজীবীরা ভালো জানেন, আইনজীবীরা কী করছেন, আমরা কিছু জানি না।’ বলে ফোন রেখে দেন তিনি।

খালেদার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন অবাক হয়ে বলেন, বিদেশে যাওয়ার আবেদনের ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। যদি সত্যিই ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) বিদেশে যেতে চায় তাহলে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাওয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি