বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১



খালেদার বিদেশ যাত্রা: দল সরব, তারেক নীরব


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
09.09.2021

নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতি মামলায় সাজা খেটে সরকারের মহানুভবতায় মুক্তি পাওয়া বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা দরকার বলে দাবি তুলেছেন দলটির সিনিয়র নেতৃবৃন্দ। উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে বিশেষ করে যুক্তরাজ্যে বেগম জিয়াকে পাঠাতে চান তারা। জানা গেছে, সেই অনুযায়ী বেগম জিয়ার পরিবারের সদস্যরাও বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি নিতে সরকারের দ্বারস্থ হয়েছেন। কিন্তু ব্যতিক্রম কেবল তারেক রহমান। বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসা কিংবা বিদেশযাত্রা নিয়ে শুরু থেকেই নীরবতা পালন করছেন তিনি। তার এই নীরবতায় দলে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

বিএনপির শীর্ষ নেতা বিশেষ করে মির্জা ফখরুলরা বিএনপি নেত্রীর উন্নত চিকিৎসা ও বিদেশযাত্রা নিয়ে নানা সময়ে আলোচনা করলেও এই ইস্যুতে একদম নীরব তারেক রহমান। বিএনপির হাইকমান্ড, বুদ্ধিজীবীরাও বেগম জিয়াকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসার কথা বললেও এই ব্যাপারে কোন অভিমত ব্যক্ত করেননি তারেক রহমান। এমনকি নানা ইস্যুতে স্কাইপে মিটিংয়ে দলের কার্যক্রম নিয়ে কথা বললেও তারেক রহমানের উন্নত চিকিৎসা বা বিদেশযাত্রার ব্যাপারে মুখ খুলেননি। দলের অভ্যন্তরে গুঞ্জন রয়েছে, বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসা নিয়ে সিরিয়াস নন তারেক রহমান। সম্ভবত নেতৃত্বের প্রসঙ্গে বেগম জিয়াকে কথা বলতে চান না তারেক।

বিএনপির একটি অংশের দাবি, তারেক রহমান চান না বেগম জিয়া দেশ ছেড়ে বিদেশে চলে যান। কারণ তিনি রাজনীতি না করতে পারলেও দেশে তার উপস্থিতিতে নেতা-কর্মীরা মনে সাহস পাবেন। আর বেগম জিয়া দেশ ছেড়ে চলে গেলে বাংলাদেশে বিএনপি কার্যত অভিভাবকহীন হয়ে পড়বে। যার কারণে দেশেই বেগম জিয়াকে রেখে চিকিৎসা করাতে চান তারেক। এছাড়া বেগম জিয়া দেশ ছাড়লে বিএনপিতে ভাঙন ধরবে, সুযোগ সন্ধানীরা বিএনপিকে ভেঙে নানা উপ-দল তৈরি করবে। মূলত কৌশলগত কারণেই বেগম জিয়াকে দেশে রাখতে চান তারেক এবং এই ইস্যুতে নীরবতা পালন করেন বলেও জানা গেছে। তারেকের মতে, বেগম জিয়া বিএনপির প্রাণ। আর তিনি বিদেশে চলে গেলে বিএনপি প্রাণহীন হয়ে পড়বে। তাই বিএনপিকে বাঁচাতে হলে বেগম জিয়াকে দেশেই রাখতে হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি