মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১



জিয়াউর রহমানের নাম ভুলে গেছে জামায়াত, ক্ষুব্ধ বিএনপি!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
09.09.2021

ডেস্ক রিপোর্ট: বিএনপির দীর্ঘ দিনের জোটসঙ্গী এবং প্রধান রাজনৈতিক বন্ধু জামায়াতে ইসলামী। অনেকদিন একসাথে জোটে থাকলেও বর্তমানে এই দুই দলের সম্পর্কে ফাটল ধরেছে। গত কিছুদিন যাবত চলা এই খারাপ সম্পর্ক প্রকাশ্যে এসেছে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবর বিতর্কে। এই নিয়ে দল দুটি মুখোমুখি অবস্থানে চলে গেছে। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে নিয়ে সাম্প্রতিক ‘বিতর্কের’ প্রেক্ষাপটে জামায়াতের বিবৃতিতে ‘মহান ব্যক্তিদের’ নিয়ে বিতর্ক না করার আহ্বান জানানো হলেও জিয়াউর রহমানের নাম উল্লেখ করেনি দলটি। জামায়াতের এই কাজে ক্ষুব্ধ হয়েছে বিএনপির নেতাকর্মীরা।

বিএনপি নেতাকর্মীদের দাবি, জিয়াউর রহমান রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। সেক্টর কমান্ডার ছিলেন। কিন্তু চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়াউর রহমানের লাশ আছে কিনা- তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতারা। এ নিয়ে জামায়াতের বিবৃতিতে জিয়াউর রহমানের নামটি একবারও উল্লেখ করা হয়নি। এটা বিএনপি নেতাদের হতবাক করেছে। এ নিয়ে দলের তৃণমূল থেকে হাইকমান্ড পর্যন্ত ক্ষুব্ধ।

জানা গেছে, গত সপ্তাহে জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল গোলাম পরওয়ার বিবৃতি দিয়ে দেশের সম্মানিত ও মহান ব্যক্তিদের নিয়ে অহেতুক বিতর্ক না করার আহ্বান জানান। বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, বেশ কয়েক দিন ধরে দেশের সম্মানিত ও মহান ব্যক্তিদের নিয়ে অহেতুক বিতর্ক করা হচ্ছে এবং তাদের ব্যাপারে অসম্মানজনক ও অশালীন ভাষা ব্যবহার করা হচ্ছে। যে বিষয়গুলো নিয়ে অহেতুক বিতর্ক করা হচ্ছে, তা দেশের জনগণকে মর্মাহত করেছে।’

জিয়া ইস্যুতে জামায়াতের এ বিবৃতিতে বিএনপি নেতাদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা বিষয়টি নিয়ে দলের অভ্যন্তরে আলোচনার পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতিবাদ জানান। সবচেয়ে ক্ষুব্ধ ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। তারা ফেসবুইকে জামায়াতকে কড়া সমালোচনা করছেন। এর পাশাপাশি জামায়াতের সাথে সম্পর্ক ত্যাগ করতে তারেক রহমানের প্রতি আহবান জানিয়েছেন অনেক নেতাকর্মী।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান বিএনপি নেতাকর্মীসহ সারাদেশের জনগণের আবেগের জায়গা। জামায়াত তাদের কৌশলের কারণে এটা করেছে। তবে এটা ঠিক হয়নি। যে দলের কারণে তারা সরকারে মন্ত্রিত্ব পেয়েছে, ক্ষমতার স্বাদ ভোগ করেছে সেই দলের প্রতিষ্ঠাতাকে ভুলে যাওয়া কাপুরুষতার লক্ষণ। এর আগেও জামায়াত রঙ বদল করেছে। এবারও তাই করলো, এদের সাথে সম্পর্ক ত্যাগ করা উচিত বিএনপির।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি