বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 3 » ‘দলের চাকরি’ হারানোর ভয়ে বিষণ্ন মির্জা ফখরুল



‘দলের চাকরি’ হারানোর ভয়ে বিষণ্ন মির্জা ফখরুল


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
09.09.2021

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির অভ্যন্তরীণ কোন্দলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অতিষ্ট হলেও, মুখ বুজে সহ্য করা ছাড়া আর কোনো উপায় নাই। দলের মহাসচিবের দায়িত্বে থাকলেও হুকুম তালিম করতেই দিন শেষ হয় তার। যা রীতিমতো চাকরিতে পরিনত হয়েছে। আর হুকুম তালিমের চাকরি করতে গিয়ে মাঝে মধ্যেই বেফাঁস কথা বলে ফেলেন তিনি।

সম্প্রতি জিয়াউর রহমানের লাশ তুলে ডিএনএ টেষ্ট করতে বলায় হুকুম তালিমের চাকরিটি হারাতে বসেছেন বিএনপির মহাসচিন মির্জা ফখরুল।

দলটির নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্যে বেজায় চটেছেন তারেক রহমান তবে মাথাব্যথা নেই খালেদা জিয়ার। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, মহাসচিব পদ থেকে তাকে সরিয়ে দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারকে।

আরো জানা যায়, সুযোগটি কাজে লাগিয়ে তারেক রহমানের কানভারি করছে মহাসচিব প্রার্থীরা। আর এ দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী।

এদিকে শীর্ষ নেতৃত্বের কাথা মতো কাজ করায় ধীরে ধীরে নিজের অনুসারীদের হারিয়ে অসহায় মির্জা ফখরুল দ্বন্দ্বে জড়িয়েছেন ডা. জাফরুল্লাহর সাথে। বিএনপির এই পরম বন্ধু এখন মির্জা ফখরুলকে ‘চাকর-বাকর’ বলে গালগাল করছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ডয়েচে ভেলে’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিএনপির বুদ্ধিজীবী ডা. জাফরুল্লাহ মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, “বেচারা বাড়ির চাকর বাকরের মতো আছে। ভাবছে চাকরি চলে যাবে। তার বক্তব্যে আমার হাসি পেয়েছে।”

রাজনৈতিক সেলিম মাহমুদ বলেন, বিএনপির রাজনীতিতে মির্জা ফখরুল একজন ভদ্র লোক। বর্তমানে দলটির রাজনীতির সাথে তার মতো মানুষের থাকা উচিত নয়। মহাসচিবের পদে থাকার জন্য সব সময় তারেকের কথা মতো চলার চেষ্টা করলেও বিরক্তি আর ক্ষোভে প্রায়ই তিনি নানা কথা বলে ফেলেন। এছাড়া এই পদটি পাওয়ার জন্য মুখিয়ে আছে অনেক নেতা। সব মিলিয়ে এখন দলটির মধ্যে ফখরুলকে নিয়ে রাজনীতি চলছে। তা না হলে দলের মহাসচিবকে ‌’চাকর’ বলতে পারতো না জাফরুল্লাহ। আর ফখরুল সাহেবও তার দূর্বলতা প্রকাশ করেছেন তাই আজ তার এই পরিনতি। তিনি চাইছেন যত যাই কিছু হোক মহাসচিব পদটি যেন তার থাকে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি