বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » গোপন মিশনেই রাতের আধারে ‘ফিরোজা’য় মির্জা ফখরুল!



গোপন মিশনেই রাতের আধারে ‘ফিরোজা’য় মির্জা ফখরুল!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
18.09.2021

নিউজ ডেস্ক: কাউকে কিছু না জানিয়ে রাতের আধারে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করলেন দলীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আর তার এই চুপিসারে দেখা করা নিয়ে দলের অভ্যন্তরে নানা গুঞ্জনের সৃষ্টি হয়েছে। অনেকের ধারণা, গোপন কোন মিশন নিয়েই সেখানে ঘন্টাব্যাপী বৈঠকে মশগুল ছিলেন খালেদা-ফখরুল। এমনকি সে সময়ে গৃহকর্মী ফাতেমাকেও ঘরে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। বলা হয়, চা-নাস্তা বাইরে রেখে চলে যাও।

একটি পক্ষ বলছে, তাহলে কি তারেককে মাইনাস করে পুনরায় দলের নেতৃত্ব খালেদার হাতেই থাকছে? অপরপক্ষের দাবি, তারেকের সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় খালেদার কাছে বিচার দিতে গিয়েছেন তার আস্থাভাজন ফখরুল। কিন্তু বিশিষ্টজনদের ভাষ্য ভিন্ন। তারা বলছেন, হয়তো নতুন কিছুই হতে চলেছে। কে জানে খালেদা-ফখরুলের নেতৃত্বে নতুন কোন দল আসলেও আসতে পারে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রের তথ্যমতে, দীর্ঘদিন ধরেই বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ভেতরে দলীয় নেতৃত্ব নিয়ে চলছে নীরব যুদ্ধ। কে কাকে মাইনাস করে দখলে নেবেন দলের পুরো নেতৃত্ব, তা নিয়ে চলছে নিত্য প্লানিং। তারই অংশ হিসেবে ১৭ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) রাতে গুলশানের বাসভবন ফিরোজাতে গিয়ে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছেন বিএনপি মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আলোচনা করেছেন দলের নানা বিষয় নিয়ে।

তবে ঠিক কি নিয়ে তাদের মধ্যে কথা হয়েছে, তা নিয়ে বাংলা নিউজ ব্যাংককে বলতে রাজি হননি মির্জা ফখরুল। তিনি এই প্রতিবেদককে বলেন, আকাশে চাঁদ উঠলে মানুষ দেখতে পাবেই। তাই এখনই সব না বলাই ভালো। ধৈর্য ধরুন। ধৈর্যের ফল মিষ্টি হয়।

বিএনপির এই তৃতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তির বক্তব্য ও আচরণ, উভয়ই রহস্যজনক উল্লেখ করে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বলেন, ফখরুলের এমন আচরণ সন্দেহজনক। তিনি কাউকে কিছু না জানিয়ে কেন ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) সঙ্গে দেখা করতে গেলেন, তাও আবার রাতের বেলায়। নিশ্চয়ই এর পেছনে তার ব্যক্তিস্বার্থ আছে। ভাবছেন, সামনে তো কাউন্সিল। যদি আবারও মহাসচিব পদে আসীন হওয়া যায়। কিন্তু সেটা কি আসলেই সম্ভব? তিনি কি আদৌ আবার এই পদের যোগ্য?

বিষয়টি নিয়ে তারেক দারুণ ক্ষুব্ধ, এমন মর্মে লন্ডনের কিংস্টনভিত্তিক একটি সূত্র বলছে, তারেক রহমান জানেনই না ফখরুল ফিরোজাতে গেছেন। তাকে জানানোর প্রয়োজন মনে করেননি তিনি। তার এমন আচরণে দারুণ কষ্ট পেয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। বলেছেন, এর শাস্তি তাকে ভোগ করতেই হবে। অনেক ছাড় দেয়া হয়েছে, আর নয়।

রাজনৈতিক বিজ্ঞজনদের মন্তব্য, বিএনপি নেত্রীর সঙ্গে তার বাসভবনে ফখরুলের ঘন্টাব্যাপী বৈঠক। নিশ্চয়ই এটি কোন বার্তা বহন করছে। সেটি কী, অনেকে অনেকভাবে অনুমান করলেও প্রকৃত রহস্য উন্মোচন হবে অচিরেই। সেটা হতে পারে, আজ, কাল অথবা পরশু। তবে আসবেই আসবে বেরিয়ে থলের বিড়াল। এটা সার্বজনীন ধ্রুবকের মতো সত্য।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি