রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » বিএনপি-জামায়াতের অর্থায়নে ‘নতুন মিশনে’ মান্না-নুর



বিএনপি-জামায়াতের অর্থায়নে ‘নতুন মিশনে’ মান্না-নুর


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
25.09.2021

নিউজ ডেস্ক: এবারই প্রথম নয়, এর আগেও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক ও সাবেক ডাকসু ভিপি মাহামুদুর রহমান মান্না এমন পরিকল্পনা করেছিলেন। পরে সেই আলাপচারিতার অডিও রেকর্ড ফাঁস হলে আটক হন পুলিশের হাতে। জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকারও করেন ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থাকার কথা। সম্প্রতি জানা গেলো, তিনি আবারও পুরনো সেই পথে হাঁটছেন। ইতোমধ্যে ‘মানুষ হত্যা’র লক্ষ্যে অনলাইন ও অফলাইন দু’মাধ্যমেই করেছেন বৈঠক। করেছেন অণুজপ্রতিম সাবেক ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের সঙ্গে শলা-পরামর্শও।

বিশ্বস্ত সূত্রের তথ্যমতে, দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে অতীতের মতো আবারও জ্বালাও-পোড়াও রাজনীতি শুরুর পাঁয়তারা করছে বিএনপি। তারই অংশ হিসেবে ক্যাম্পাসে লাশ ফেলার পরিকল্পনা করছেন দুই সাবেক ছাত্রনেতা মাহামুদুর রহমান মান্না ও নুরুল হক নুর। লন্ডন থেকে তারেক রহমানের প্রচ্ছন্ন নির্দেশনায় তারা এমনটা করতে যাচ্ছেন এবং ইতোমধ্যে অনেকটা অগ্রসরও হয়েছেন বলে জানা গেছে।

এখন শুধু মাত্র বিশ্ববিদ্যালয় খোলার অপেক্ষা। খুললেই ক্যাম্পাসগুলোতে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করবেন একাধিক জনকে। তবে কারা আছেন সেই তালিকায়, তা এখনও জানা যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, রাজপথে ছাত্রলীগের লড়াকু সৈনিকরাই এই তালিকায় থাকবেন। এর বাইরেও থাকবেন আওয়ামীপন্থী একাধিক শিক্ষক ও বুদ্ধিজীবীগণ।

অর্থায়ন বিএনপি-জামায়াতের হলেও এই মিশনের নেপথ্যে তারেক শক্তিশালী ভূমিকা রাখছেন। শুধু তাই নয়, পুরো মাস্টারপ্ল্যানই তার করা। আর বাস্তবায়নে রয়েছেন মান্না ও নুর-এমন উল্লেখ করে দেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, তারেক গভীর জলের মাছ। ‘ধরি মাছ না ছুঁই পানি’ করে পুরো প্ল্যানটা সাজিয়েছেন। আর নামে মাত্র সামনে রেখেছেন মান্না ও নুরকে। নেপথ্যের খিলাড়ি তিনিই।

এর আগেও তার কথা মোতাবেক বিএনপি নেতা সাদেক হোসেন খোকাকে কয়েকজন ছাত্রের লাশ ফেলার পরিকল্পনা দিয়েছিলেন এই মান্না। যা সে সময় ফাঁসকৃত অডিও রেকর্ডের মাধ্যমে সবাই জানতে পারে। চিনতে পারে বিএনপির আসল রূপ। তবে ওই বিষয়ে আফসোসই ছিলো না মান্নার। বরং হাসিমুখে জিজ্ঞাসাবাদে বলেছিলেন, রাজনীতির গতিপথ বদলাতে গেলে লাশের প্রয়োজন হয়।

রাজনৈতিক এই বিজ্ঞজনরা আরও বলেন, শেষ পাওয়া তথ্যমতে যুদ্ধাপরাধী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছেলে হুম্মাম কাদের বিএনপিপন্থী দু’জন ব্যবসায়ীর মাধ্যমে মান্নাকে দিয়েছেন দেড় কোটি টাকা। আর বলেছেন, তারেক ভাইয়ার শেষ কথা-যে কোন মূল্যেই ফেলতে হবে লাশ। তবেই সেই ধারাবাহিকতায় দেশজুড়ে নাশকতা শুরু করা যাবে। এক্ষেত্রে কোন অজুহাতই তিনি শুনতে চান না। এমতাবস্থায় সরকারের পাশাপাশি আমাদের সবাইকে সদা সতর্ক থাকতে হবে, যাতে তারা কোনভাবেই তাদের অসৎ উদ্দেশ্য সাধন না করতে পারে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি