সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » other important » চেষ্টা করেও নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে পারছেন না ফখরুল



চেষ্টা করেও নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে পারছেন না ফখরুল


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
03.10.2021

ফখরুল

নিউজ ডেস্ক : লকডাউন শেষ হবার পর থেকে দলকে চাঙ্গা করতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠক ডাকার চেষ্টা করেছেন দুই দফা। কিন্তু দুই দফাই ব্যর্থ হয়েছেন। স্থায়ী কমিটির কোনো সদস্যই মির্জা ফখরুলের সঙ্গে বসতে চান না। স্থায়ী কমিটির অন্তত পাঁচজন সদস্য লিখিত চিঠি দিয়ে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে জানিয়ে দিয়েছেন যে মির্জা ফখরুল মহাসচিব থাকলে তারা স্থায়ী কমিটির বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন না। এটাও বলেছেন যে, মির্জা ফখরুল কী কারণে বিগত দুই বছর ধরে ঘরে বসে ছিলেন, সেটাও স্থায়ী কমিটির জানা প্রয়োজন।

উল্লেখ্য যে, তারেক রহমান স্থায়ী কমিটির বিভিন্ন সদস্যের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলছেন। তাদেরকে পরিস্থিতি বুঝানোর চেষ্টা করছেন। কিন্তু কিছুতেই পরিস্থিতি শান্ত হচ্ছে না। বরং বিএনপিতে এখন দ্বিধাবিভক্ত স্পষ্ট হয়েছে। একদিকে রয়েছে তারেক রহমান আর মির্জা ফখরুল, অন্যদিকে স্থায়ী কমিটির অন্যান্য সদস্যরা। স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বলছেন যে, বিএনপির গঠনতন্ত্র মির্জা ফখরুলের হাতে নিরাপদ নয়।

স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনও একই অভিমত ব্যক্ত করেছেন। স্পষ্টত দলের ভেতর কোনো শৃঙ্খলা নাই এবং মির্জা ফখরুল ও তারেক রহমান কী সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সেটা স্থায়ী কমিটিতে জানানো হচ্ছে না। জেনে রাখা প্রয়োজন, স্থায়ী কমিটির সদস্যরা মির্জা ফখরুলের সঙ্গে স্থায়ী কমিটিতে বসতে অনাগ্রহ দেখাচ্ছে। তাহলে কি বিএনপি ভেঙ্গে যাচ্ছে?

অবশ্য কেউই এখনো সুনির্দিষ্টভাবে বলেননি যে বিএনপি ভাঙছে। তবে এটা ঠিক যে মির্জা ফখরুল আলাদাভাবে তার পক্ষের লোকজন নিয়ে মিটিং করছেন। যে সমস্ত কর্মসূচিতে মির্জা ফখরুল উপস্থিত থাকছেন সেসবে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনসহ স্থায়ী কমিটির অন্য সদস্যরা অংশগ্রহণ করছেন না। এটা ঠিক যে, বিএনপির তৃণমূল স্পষ্টই এই শপথ গ্রহণের বিপক্ষে এবং তারা মনে করছে যে, এই শপথ গ্রহণের মধ্যদিয়ে বিএনপির অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়েছে। জাতীয় নির্বাহী কমিটির অন্তত ৭১ জন সদস্য তালিকা সংগ্রহ করেছেন এবং তারা একটি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সভা বা তলবীসভা আহ্বানের জন্য একটি চিঠি প্রস্তুত করছেন এবং এই চিঠিটা দু-একদিনের মধ্যে দলের মহাসচিবের কাছে দেয়া হবে। মহাসচিব যদি দলের কর্মীসভা আহ্বানে ব্যর্থ হোন সেক্ষেত্রে তারা নিজেরাই তলবী সভা করবেন বলে একাধিক নেতা জানিয়েছেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি