সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১



সরকারের ছায়া তলে আশ্রয় চায় বিএনপি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
06.10.2021

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশের রাজনীতিতে এখন প্রায় সব রাজনৈতিক দলই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অনুগত। মুক্তিযুদ্ধ, জাতির পিতা, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের মতো মৌলিক জাতীয় প্রশ্নে তাদের মতপার্থক্য কমে এসেছে। ১৯৮২ সাল থেকে ৯০ পর্যন্ত নয় বছর ক্ষমতায় ছিলেন এরশাদ। সে সময় এরশাদ না ইনডেমনিটি অর্ডিন্যান্স বাতিল করেছিলেন, না জাতির পিতাকে স্বীকৃতি দিয়েছিলেন।

এরশাদ বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনিদের পদোন্নতি দিয়েছিলেন। তাদের ব্যবসা-বাণিজ্য দিয়েছিলেন। ‘ফ্রিডম পার্টি’ নামে একটি রাজনৈতিক দলও খুলেছিল আত্মস্বীকৃত খুনিরা। ঐ রাজনৈতিক দলটি এরশাদের পৃষ্ঠপোষকতায় বেড়ে উঠেছিল। কিন্তু সময়ের আবর্তে সব বদলে গেছে। এরশাদ জীবিত থাকা অবস্থায় আওয়ামী লীগের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখেছিলো। তার মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টির হর্তাকর্তারা একই লিয়াজু মেনে চলছেন। আওয়ামী লীগের সঙ্গে কেবল মহাজোট করেনি দলটি, বরং আওয়ামী লীগের কথার বাইরে যাবার জো নেই জাতীয় পার্টির।

জাতীয় পার্টির অনেক অভ্যন্তরীণ বিরোধ মেটান আওয়ামী লীগ সভাপতি। জাতীয় পার্টির নেতারা এখন যারপরনাই বঙ্গবন্ধুভক্ত। জাপা ঘটা করে জাতীয় শোক দিবস, জাতির পিতার জন্মদিন পালন করে। মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে এখন জাপা নেতারা মুখে ফেনা তোলেন।

বর্তমানে আওয়ামী লীগ বিএনপির মধ্যেও একই রূপান্তর চায়। আওয়ামী লীগ চায়, বিএনপি জাপার মতো পরিবর্তিত হোক। আদর্শগত দিক থেকে বিএনপি এবং জাতীয় পার্টি একই ঘরানার। দুটি দলই স্বাধীনতা বিরোধীদের পৃষ্ঠপোষকতা দিয়েছিল। কিন্তু জেল আতংকেই এরশাদের পরিবর্তন হয়েছে। আওয়ামী লীগের ধারণা, বিএনপিরও এরকম পরিবর্তন হবে। আওয়ামী লীগের একাধিক শীর্ষ নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বাংলাদেশের রাজনীতিতে মৌলিক জাতীয় প্রশ্নে আওয়ামী লীগ ঐক্যমত চায়।

আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেছেন,‘রাজনীতিতে ভিন্নমত থাকতেই পারে। ভিন্ন কর্মসূচীও থাকতে হবে। কিন্তু মৌলিক জাতীয় প্রশ্নে আমাদের একমত থাকতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করে বাংলাদেশে রাজনীতি করার অধিকার দেওয়া যায় না।’

এ প্রসঙ্গে এক রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, ‘এমনিতেই বিএনপির অস্তিত্ব বিপন্ন। এই অবস্থা কাটাতে তারা জাতীয় পার্টির মতো পন্থা অবলম্বন করতে পারে। তারা তাদের নীতি এবং আদর্শ পাল্টে মূলধারার রাজনীতিতে আসতে পারে। না হলে তাদের অস্তিত্ব বিলীন হয়ে যাবে। অবশ্য বিএনপিকে পরিবর্তনের ইঙ্গিত পাওয়া যায়। বিগত পাঁচ বছর ধরে কোনো আন্দোলনে না যাওয়াই প্রমাণ করে, বিএনপি সরকারের ছায়া তলে আশ্রয় চায়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি