রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১



লন্ডন নাকি কারাগার, কোথায় যাবেন খালেদা জিয়া?


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
26.10.2021

নিউজ ডেস্ক : কাগজে-কলমে বিএনপি চেয়ারপারসন হলেও রাজনীতি থেকে দূরে সরেছেন বেগম খালেদা জিয়া। বর্তমানে তিনি রাজনীতির চেয়ে বিদেশে যেতে বেশি আগ্রহী। আর এজন্য তার মুক্তি চেয়ে বেগম জিয়ার পরিবারের সদস্যরা নতুন করে একটা আবেদন করেছেন। বেগম খালেদা জিয়ার কি মুক্তি হবে নাকি বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে যেতে হবে? এরকম নানা প্রশ্নের সমীকরণ মিলানো হচ্ছে এখন রাজনৈতিক অঙ্গনে। সব বিবেচনায় বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, খালেদা জিয়ার সামনে তিনটি পথ খোলা আছে।

প্রথমত, ক্ষমা প্রার্থনা। বেগম খালেদা জিয়ার যদি প্রধান লক্ষ্য হয় যে তিনি মুক্ত হয়ে বিদেশে চিকিৎসার জন্য যাবেন তাহলে তাকে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনার আবেদন করতে হবে। ক্ষমা প্রার্থনার আবেদন ছাড়া তার আপাতত মুক্তির অন্য কোন পথ খোলা নেই। আর এই ক্ষমা প্রার্থনার আবেদন করা মানেই তিনি তার অপরাধ স্বীকার করে নিলেন। দুটি মামলায় ১৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত আছেন বেগম খালেদা জিয়া। দুটি মামলায় তার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট এবং জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট থেকে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। একটি মামলায় ইতিমধ্যে হাইকোর্টে প্রমাণিত হয়েছে, এখন তা আপিল বিভাগে বিচারাধীন রয়েছে। অন্য মামলাটি নিম্ন আদালতে বেগম খালেদা জিয়াকে সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছে।

খালেদা জিয়ার সামনে দ্বিতীয় পথটি হলো আইনি এবং রাজনৈতিক লড়াই করে সামনে এগিয়ে যাওয়া। বেগম খালেদা জিয়া যদি রাজনীতি করতে চান তাহলে এই দণ্ডের বিরুদ্ধে তাকে আইনি লড়াই মোকাবেলা করতে হবে এবং সরকারের কাছ থেকে অনুকম্পা ভিক্ষা না করে তার দলকে শক্তিশালী করতে হবে এবং দল যেন তার মুক্তির জন্য আন্দোলন করে এবং পাশাপাশি আইনি লড়াই করে সেরকম একটি নির্দেশনা বেগম খালেদা জিয়াকে দিতে হবে। সেইজন্য প্রয়োজনে তাকে আবার জেলে যেতে হতে পারে।

বেগম খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক নেতৃত্ব নিতে হবে এবং বিএনপিকে সংগঠিত করার দায়িত্ব পালন করতে হবে। কিন্তু প্রশ্ন হল যে, বেগম খালেদা জিয়ার যে বয়স এবং তার পুত্র তারেক রহমানের রাজনৈতিক কর্তৃত্ব সেখানে বেগম খালেদা জিয়া এই পথ গ্রহণ করতে পারবেন না বলেই রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন। বেগম খালেদা জিয়া নানা রকম শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন। এ অবস্থায় নব্বইয়ের দশক, আশির দশকের মধ্যে রাজনৈতিক নেতৃত্ব গ্রহণ তার পক্ষে সম্ভব নয় এবং আপোষহীন ইমেজ নিয়ে আবার কারাগারে গিয়ে রাজনৈতিক আন্দোলন এবং আইনগত আন্দোলন করা তার পক্ষে কতটুকু সম্ভব তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

তৃতীয়ত, সরকারের সঙ্গে সমঝোতা। বেগম খালেদা জিয়ার সামনে তৃতীয় পথ সরকারের সামনে অঘোষিত গোপন সমঝোতা করা যে সমঝোতার শর্ত হিসেবে বেগম খালেদা জিয়া রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড করবেন না, তিনি তার দলকে সরকারের বিরুদ্ধে বড় ধরনের আন্দোলন করার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা দিবেন এবং আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন। সরকারের সঙ্গে এরকম একটি সমঝোতার মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়ার হয়তো মুক্তি হতে পারে এবং সেক্ষেত্রে বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটবে।

বেগম জিয়া কোন পথে যাবেন সে সিদ্ধান্ত নিতে হবে বেগম খালেদা জিয়াকে। অবশ্য বিএনপির একাধিক নেতা বলছেন, খালেদা জিয়ার ব্যাপারে কিছুই জানেন না। তার ব্যাপারে সব সিদ্ধান্তই নিচ্ছেন তিনি নিজে এবং তার পরিবার।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি